kalerkantho


ঘর পালানো শিশু ফিরে গেল মায়ের কোলে

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার   

২৩ অক্টোবর, ২০১৮ ২৩:৩৩



ঘর পালানো শিশু ফিরে গেল মায়ের কোলে

ছবি: কালের কণ্ঠ

নরসিংদী থেকে অভিমান করে ঘর পালানো এগার বছরের শিশু সজীব ফিরে পেয়েছে তার মায়ের কোল। কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট (পর্যটন সেল) মো. সেলিম শেখ সামাজিক গণমাধ্যমের সহায়তায় ছেলেটিকে তার পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দিতে সক্ষম হন। মঙ্গলবার সকালে কক্সবাজার সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্টস্থ জেলা প্রশাসনের তথ্য কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হয় এই হস্তান্তর কার্যক্রম।
 
ঘটনার বিবরণে জানা যায়, বাবার শাসনের কারণে অভিমান করে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায় ১১ বছরের শিশু ছেলে মো. সজীব। ঢাকা থেকে গাড়িতে করে চলে আসে কক্সবাজার। উদ্দেশে ছিল কক্সবাজার এসে কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করবে। কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত এলাকায় গভীর রাতে একা একা একটা ছেলেকে দেখে বীচ কর্মীদের সন্দেহ হলে তাৎক্ষণিক জেলা প্রশাসনের পর্যটন সেলে দায়িত্বরত সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সেলিম শেখকে খবর দেয় তারা। এ সময় দ্রুত ছুটে যান তিনি।
 
জিজ্ঞাসাবাদ করে জানা যায় বাড়ি থেকে অভিমান করে গত ১৯ অক্টোবর কক্সবাজারে পালিয়ে আসে। একই সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পরিচয় প্রাপ্তির প্রয়োজনে ছেলেটির একটি ছবি পোস্ট করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। স্বল্প সময়ের মধ্যে পাওয়া যায় ছেলেটির পরিচয়। তার নাম মো. সজীব, পিতা মো. জয়নাল আবেদীন, গ্রাম-মধুয়ারটেক, দলিরপাড় মোড়, পোড়াদিয়া, ইউনিয়ন- পাটুলি, থানা- বেলাব, জেলা-নরসিংদী। সজীব নতুনকুড়ি কিন্টার গার্ডেনে ৫ম শ্রেণিতে অধ্যয়নরত।
 
পরিচয় পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে উক্ত এলাকার সংশ্লিষ্ট প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে শুরু করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। তাদের সহযোগীতায় রাতেই ছেলেটির পিতা মো. জয়নাল আবেদীনের সঙ্গে যোগাযোগ সম্ভব হয়।
 
ছেলের সন্ধান পেয়ে পিতা নরসিংদী থেকে মঙ্গলবার কক্সবাজার ছুটে আসেন ছেলেকে ফিরিয়ে নিতে। সকালে সুগন্ধা সৈকত পয়েন্টস্থ জেলা প্রশাসনের তথ্য কেন্দ্রে পিতার কাছে ছেলেটিকে হস্তান্তর করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সেলিম শেখ। এ সময় ছেলেটির পরিবারের অন্যান্য সদস্য, বীচ কর্মীসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন। ছেলে সজীবকে ফিরে পেয়ে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন পিতা জয়নাল। এ যেন এক বিশাল প্রাপ্তির আনন্দাশ্রু। সেই সঙ্গে জেলা প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান তিনি।


মন্তব্য