kalerkantho


প্রতিমা বিসর্জনে কুশিয়ারায় মানুষের ঢল

জকিগঞ্জ (সিলেট) প্রতিনিধি    

১৯ অক্টোবর, ২০১৮ ২১:০৮



প্রতিমা বিসর্জনে কুশিয়ারায় মানুষের ঢল

ঘোড়ার পিঠে চড়ে আসা দুর্গতিনাশিনী দেবী দুর্গার পুনরায় ঘোড়ায় চড়ে চলে যাওয়ার মাধ্যমে সিলেটের জকিগঞ্জে শান্তিপূর্ণভাবে দুর্গাপূজা সম্পন্ন হয়েছে।

আজ শুক্রবার (১৯ অক্টোবর) বিজয়া দশমীতে সীমান্ত উপজেলা জকিগঞ্জের কুশিয়ারা নদীর কাস্টমসঘাটে প্রতিবারের মতো এবারো বসেছিল মানুষের মিলন মেলা। ভালোবাসা আর চোখের জলে দেবী দুর্গাকে বিদায় জানাতে কুশিয়ারার দুই তীরে পূজারী, ভক্ত ও শুভার্থীদের ঢল নামে। হিন্দু-মুসলিমের এ মিলন মেলা জমে জকিগঞ্জের পৌরশহরের কাস্টমসঘাট ও ভারতের অখণ্ড মণ্ডলী মন্দিরের সামনে।

বাঙালি হিন্দুদের বৃহৎ ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজার সমাপনীর মিলন মেলায় হিন্দু সম্প্রদায়ের পাশাপাশি জকিগঞ্জ উপজেলা, পৌরসভা ও পুলিশ প্রশাসনের কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি ছাড়াও সর্বস্তরের মানুষ তাতে অংশ নেয়। বিজিবি ও বিএসএফ সদস্যরা মেতে ওঠেন এ উৎসবে। বাংলাদেশ ও ভারতের শত শত প্রতিমা বিসর্জনের অভূতপূর্ব দৃশ্য ও শোভাযাত্রায় লোকে লোকারণ্য হয়ে পড়ে পুরো কাস্টমস এলাকা।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ জকিগঞ্জ সভাপতি সাধারণ সম্পাদক সঞ্জয় চন্দ্র নাথ বলেন, পাঁচ দিনের মহোৎসব শেষে প্রতিমা বিসর্জনে সব ধর্মবর্ণের মানুষের মিলন মেলা যেন সৌহার্দ্য সম্প্রীতির মেলবন্ধন সৃষ্টি করেছে।

বিসর্জন মঞ্চে আয়োজিত সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি  মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ, যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. আহমদ আল কবির, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মোশতাক আহমেদ, উপজেলা চেয়ারম্যান ইকবাল আহমদ, জেলা পরিষদ প্যানেল চেয়ারম্যান শামীম আহমদ প্রমুখ।

অভ্যাগতদের স্বাগত জানান পূজা পরিষদ নেতা চন্দ্র বিশ্বাস, জ্যোতিষ চন্দ্র পাল, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ নেতা ডা. বিভাকর দেশমুখ্য, শুভ্র কান্তি দাস চন্দন, অপূর্ব পাল, শ্রীকান্ত পাল প্রমুখ।



মন্তব্য