kalerkantho


রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা

জালিয়াতির ২০ হাজার টাকা নিতে এসে যুবক আটক

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১৮ অক্টোবর, ২০১৮ ২০:২৩



জালিয়াতির ২০ হাজার টাকা নিতে এসে যুবক আটক

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে চলতি বছরের স্নাতক শ্রেণির অনুষ্ঠেয় ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতিতে সম্পৃক্ততার অভিযোগে এক যুবককে মারধর করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলায় ওই যুবককে মারধরের পর নগরীর মতিহার থানা পুলিশের হাতে তুলে দেয় ভর্তিচ্ছুসহ কয়েকজন শিক্ষার্থী। ভর্তিচ্ছুদের দাবি, জালিয়াতি চুক্তির ৫০ হাজার টাকার অগ্রীম ২০ হাজার টাকা নিতে এসেছিল ওই যুবক।

আটক ওই যুবকের নাম গোলাম রাব্বানী। তার বাড়ি রাজশাহীর বাগমারায়। ২০১৬ সালে তিনি রাজধানীর একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক পাস করেন। বর্তমানে তিনি রাজশাহী সিটি কলেজে বিবিএস ডিগ্রিতে অধ্যয়নরত আছেন। আগামী ২২-২৩ অক্টোবর বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের প্রথম বর্ষ ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

জানা গেছে, কিছুদিন আগে রিফাত নামের এক ভর্তিচ্ছুর সঙ্গে ৫০ হাজার টাকায় জালিয়াতির মাধ্যমে ভর্তি করিয়ে দেওয়ার চুক্তি হয় গোলাম রাব্বানীর। রিফাতের বরাত দিয়ে তার বন্ধু সৌরভ জানান, গোলাম রাব্বানীর সঙ্গে রিফাতের বাসে পরিচয় হয়। এরপর রাব্বানী রিফাতকে টাকার বিনিময়ে রাবিতে ভর্তির প্রতিশ্রুতি দেন। রাব্বানী ওই ভর্তিচ্ছুকে ৫০ হাজার টাকায় প্রশ্ন সরবরাহ ও দেড় লাখ টাকায় সরাসরি রাবিতে ভর্তির প্রস্তাব দিলে রিফাত ৫০ হাজার টাকায় রাজি হয়।

তারপর ওই মেয়ে বিষয়টি তার বন্ধু সৌরভসহ অন্যদের জানায়। এরপর গোলাম রাব্বানীর সঙ্গে কয়েক দফা যোগাযোগ হয় ওই ভর্তিচ্ছুর। পরে কৌশলে অগ্রিম কিছু টাকার প্রলোভন দেখিয়ে তারা গোলাম রাব্বানীকে ক্যাম্পাসে আসার অনুরোধ জানায়। বৃহস্পতিবার রাব্বানী ক্যাম্পাসে আসলে ভর্তুচ্ছুর বন্ধুরা তাকে মারধর করে পুলিশে দেয়।
 
আটক থাকা অবস্থায় গোলাম রাব্বানী কালের কণ্ঠকে বলেন, ওই ভর্তিচ্ছুর সঙ্গে আমার বাসে পরিচয় হয়েছিল। তবে আমি তাকে এমনি এমনি এগুলো বলেছিলাম। আমি এগুলোর সঙ্গে জড়িত নই। আর আজ টাকা নিতে না, ওই ভর্তিচ্ছুর মায়ের সঙ্গে কথা বলতে এসেছিলাম যে, আমি এসব করি না। এগুলো ভুয়া।

মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহাদাৎ হোসেন বলেন, তাকে থানায় আনা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে অভিযোগের সত্যতা মিললে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেব।

জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান কালের কণ্ঠকে বলেন, আমরা আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশনা দিয়েছে যে, গোলাম রাব্বানীর ভর্তি জালিয়াত চক্রের সঙ্গে কোনো সংশ্লিষ্টতা আছে কিনা, তা খুঁজে বের করার জন্য। এছাড়া ভর্তি পরীক্ষায় সব ধরনের জালিয়াতি ঠেকাতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



মন্তব্য