kalerkantho


ভাইরাস জ্বরের হানা

গোলাম রসুল, দুর্গাপুর (রাজশাহী)    

১৮ অক্টোবর, ২০১৮ ১০:৫৪



ভাইরাস জ্বরের হানা

রাজশাহীর দুর্গাপুরে দেখা দিয়েছে ভাইরাস জ্বরের প্রাদুর্ভাব। প্রতিদিনই জ্বর, সর্দি, মাথা ব্যথা ও ডায়রিয়ায়  আক্রান্ত হয়ে উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসা নিচ্ছেন শত শত রোগী। এ ছাড় অনেকে আবার গ্রাম্য চিকিৎসকেরও শরণাপন্ন হয়ে চিকিৎসা গ্রহণ করছেন।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, গত দেড় সপ্তাহ থেকে দুর্গাপুরে এসব রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে।

চিকিৎসকরা বলছেন আবহাওয়া পরিবর্তন ও শীতের আগমনের কারণেই মূলত জ্বর,সর্দি ও ডায়রিয়া দেখা দিয়েছে। অধিকাংশ পরিবারের এক বা একাধিক সদস্য  ভাইরাস জ্বর, সর্দি কাশিতে আক্রান্ত হচ্ছে। দিন দিন আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। তবে এর মধ্যে শিশুর  সংখ্যাই বেশি। আবার অনেকের জ্বর ১০ থেকে ১২ দিন স্থায়ী থাকার পারে দেখা দিচ্ছে টাইফয়েড। তবে এ জ্বরে ভয়ের কোনো কারণ নেই বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।

বেশিরভাগ রোগীকে চিকিৎসা-পরামর্শ দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে হাসপাতাল থেকে। পরিবারের কোনো  একজনের জ্বর হলেই বাকি সদস্যরাও এর শিকার হচ্ছেন। হাসপাতাল, চিকিৎসকের চেম্বার ও প্রাইভেট ক্লিনিকগুলোতে ভাইরাস জ্বরে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা নিতে দেখা গেছে। বর্তমানে হাসপাতালের বহির্বিভাগ ও ওয়ার্ডগুলোতে তেমন একটা জায়গা নেই বললেই চলে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন উপজেলার গোড়খাই গ্রামের কুলসুম বেগম ও খিদ্রখলসী গ্রামের বেবী নাজরিন, সিংগ্রা গ্রামের শাহরীয়া ও পানানগর গ্রামের হোসেন আলী জানান, তারা কয়েকদিন আগে জ্বর ও সর্দি কাশিতে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছেন। তাঁদের শরীরে প্রচণ্ড ব্যথা। মাঝে মাঝে শরীরে কাঁপুনি দিয়ে প্রচণ্ড জ্বর আসছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. দেওয়ান নাজমুল আলম বলেন, আবহাওয়া পরিবর্তনের প্রভাবেই মূলত এসব রোগ দেখা দিয়েছে। ভয়ের কোনো কারণ নেই, আবহাওয়া পরিবর্তন হলে এ ধরনের রোগীর সংখ্যা কমে যাবে। আমরা রোগীদের সার্বক্ষণিক চিকিৎসা সেবা প্রদান করে যাচ্ছি।



মন্তব্য