kalerkantho


জাল চেকে টাকা উত্তোলনের চেষ্টা, নারী আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুমিল্লা   

১৭ অক্টোবর, ২০১৮ ০২:৩৭



জাল চেকে টাকা উত্তোলনের চেষ্টা, নারী আটক

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম ও তেরিপট্টি শাখা ইসলামী ব্যাংক থেকে জাল চেক এবং জমা রশিদ দিয়ে নিজের একাউন্টে পাঁচ লাখ ৮৩ হাজার টাকা স্থানান্তর করে সাকিনা বেগম (২১) নামের এক নারী প্রতারক। গতকাল মঙ্গলবার মামলা শেষে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়। এর আগে সোমবার চৌদ্দগ্রাম বাজারস্থ ইসলামী ব্যাংক থেকে তাকে আটক করা হয়। সাকিনা জামালপুর জেলার ইসলামপুর থানার পশ্চিম বামনা গ্রামের দুলাল শেখের মেয়ে। সে দীর্ঘদিন ধরে জাল চেকের মাধ্যমে প্রতারণা করে আসছিল। 

জানা গেছে, গত ১৫ অক্টোবর সোমবার দুপুরে সাকিনা বেগম ইসলামী ব্যাংক চৌদ্দগ্রাম শাখায় এসে ইসলামী ব্যাংক লক্ষ্মীপুরের রায়পুর শাখার জনৈক শফিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত ২ লাখ ৯০ হাজার টাকার একটি চেক প্রদান করে। চেকের মাধ্যমে উত্তোলিত টাকা সাকিনার ব্যক্তিগত একাউন্ট ইসলামী ব্যাংক গাজীপুর শাখায় জমা দেয়ার জন্য রশিদ প্রদান করে। ব্যাংক থেকে শফিকুল ইসলামের মোবাইল নাম্বারে কল করলে সেটি বন্ধ পাওয়া যায়। পরবর্তীতে চেকে দেয়া নম্বরে কল করলে জনৈক ব্যক্তি নিজেকে শফিকুল ইসলাম ও স্বাক্ষরটি নিজের বলে দাবি করে। এতে আশ্বস্ত হয়ে ব্যাংক থেকে প্রতারক সাকিনার ব্যক্তিগত একাউন্টে ২ লাখ ৯০ হাজার টাকার স্থানান্তর করা হয়। 

এরপর সে নিজের একাউন্ট থেকে ৫ লাখ টাকা উত্তোলন করতে চায়। নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে ব্যাংক কর্মকর্তারা ৫ লাখ টাকা উত্তোলন না করার পরামর্শ দেন। কিন্তু প্রয়োজনের কথা বিবেচনা করে সাকিনা ১ লাখ টাকা উত্তোলনের জন্য ব্যাংকের গাজীপুর শাখার একটি চেক দেয়। প্রতারক সাকিনার কথায় সন্দেহ হলে ইসলামী ব্যাংকের চৌদ্দগ্রাম শাখার অপারেশন অফিসার এ কে এম মাহবুব উল্যাহ তার ব্যাংক স্টেটমেন্ট চেক করলে দেখতে পায় একইভাবে প্রতারণার মাধ্যমে তেরিপট্টি শাখা থেকে ২ লাখ ৯৩ হাজার টাকা নিজের একাউন্টে স্থানান্তর করেছে। এ ঘটনায় আটক প্রতারক সাকিনার বিরুদ্ধে চৌদ্দগ্রাম থানায় একটি মামলা করেছেন ইসলামী ব্যাংক চৌদ্দগ্রাম শাখার কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইমরান হাসান।

এ ব্যাপারে চৌদ্দগ্রাম থানার সেকেন্ড অফিসার নাসির উদ্দিন জানান, ‘প্রতারক নারীকে আটক করা হয়েছে। তার সঙ্গে আর কারা জড়িত তা তদন্ত সাপেক্ষে বেরিয়ে আসবে’। 



মন্তব্য