kalerkantho


লাকসামে মোটরসাইকেল-সিএনজি সংঘর্ষে যুবক নিহত

মামার মরদেহ আনতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরল ভাগ্নে

কুমিল্লা (দক্ষিণ) প্রতিনিধি   

১৬ অক্টোবর, ২০১৮ ২১:২৭



মামার মরদেহ আনতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরল ভাগ্নে

চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মারা গেছেন মামা। একটি অ্যাম্বুলেন্সযোগে মামার লাশ বাড়ির কাছাকাছি এসেছিল। মামার লাশকে বাড়ির দিকে এগিয়ে আনতে এক বন্ধুসহ মোটরসাইকেলযোগে যাচ্ছিলেন ভাগ্নে। কিন্তু মামার লাশ নিয়ে আর বাড়ি ফেরা হলো না তার। কারণ পথিমধ্যে সিএনজি চালিত একটি অটোরিক্সার সঙ্গে তাদের মোটরসাইকেলটির মুখোমুখি সংঘর্ষে ওই ভাগ্নে মারা গেছে।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে কুমিল্লার লাকসাম পৌর শহরের রাজঘাট এলাকায়। সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ওই ভাগ্নের নাম মো. শাহ আলম। তিনি লাকসাম পৌর এলাকার পেয়ারাপুর মধ্য পাড়া গ্রামের বিল্লাল হোসেনের ছেলে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, মঙ্গলবার ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শাহ আলমের মামা আবদুল খালেক ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মারা যান। ওইদিন দুপুরে একটি অ্যাম্বুলেন্সযোগে লাকসাম জংশন এলাকায় মামার লাশ এসে পৌঁছলে অ্যাম্বুলেন্সটিকে পথ দেখিয়ে বাড়ির দিকে এগিয়ে আনতে শাহ আলম তার বন্ধু আবদুর রাজ্জাককে নিয়ে মোটরসাইকেলযোগে রওনা দেয়। পথিমধ্যে পৌর শহরের রাজঘাট পশ্চিম বাজার এলাকায় একটি সিএনজি চালিত অটোরিকশার সঙ্গে তাদের মোটরসাইকেলটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হয় শাহ আলম। এ সময় মোটরসাইকেলে থাকা তার বন্ধু আবদুর রাজ্জাক গুরতর আহত হয়। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে লাকসামের একটি প্রাইভেট ক্লিনিকে ভর্তি করেছে।

মঙ্গলবার বিকেলে এই প্রসঙ্গে জানতে চাইলে লাকসাম থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. নজরুল ইসলাম কালের কণ্ঠকে বলেন, আমিও বিভিন্ন মাধ্যমে ঘটনাটি শুনেছি। কিন্তু নিহতের পরিবার থেকে এখনো আমাদেরকে ঘটনাটি জানানো হয়নি। তবে আমি ঘটনার কারণ বিস্তারিত জানতে পুলিশের একটি টিম ওই এলাকায় পাঠিয়েছি।



মন্তব্য