kalerkantho


মুক্তিপণের টাকা দিয়েও মুক্তি মেলেনি শরণখোলার দুই জেলের

অপহরণের ১০দিন পার, পরিবারে উৎকণ্ঠা

শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি   

১৬ অক্টোবর, ২০১৮ ২০:০৫



মুক্তিপণের টাকা দিয়েও মুক্তি মেলেনি শরণখোলার দুই জেলের

দশ দিন ধরে বনদস্যুদের হাতে জিম্মি রয়েছে বাগেরহাটের শরণখোলার দুই জেলে। মুক্তিপণের ৬০ হাজার টাকা পরিশোধ করার পরেও মুক্তি মেলেনি তাদের। এ অবস্থায় ওই দুই জেলে পরিবারে উৎকণ্ঠা আর হতাশা বিরাজ করছে।

গত ৬ অক্টোবর মাছ ধরে ফেরার সময় পূর্ব সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের শিয়ালা নামক এলাকা থেকে বনদস্যু ‘ছত্তার ভাই’ বাহিনী তাদেরকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। জেলেদের উদ্ধারে অভিযান চলমান রয়েছে বলে কোস্টগার্ড জানিয়েছে।

অপহৃতরা হলেন, শরণখোলা উপজেলার ধানসাগর ইউনিয়নের পশ্চিম রাজাপুর গ্রামের হারুন বয়াতির ছেলে মিজান বয়াতী এবং একই গ্রামের লুৎফর তালুকদারের ছেলে সুজন তালুকদার।

জেলে মিজানের ভাই মো. শাহিন বয়াতী জানান, অপহরণের তিন দিন পর বনদস্যুদের দাবিকৃত মুক্তিপণের ৬০ হাজার টাকা বিভিন্ন নাম্বারে বিকাশের মাধ্যমে পরিশোধ করা হয়েছে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত তারা ফিরে আসেনি। মুক্তিপণ পেয়ে দস্যুরা জানিয়েছিল অবরোধ শেষ হলে তাদের ছাড়া হবে। তার পর থেকে তাদের সাথে আর কোনো যোগাযোগ হয়নি। দীর্ঘ দিন দুই জেলে দস্যুদের কাছে জিম্মি থাকায় পরিবারের লোকজন আরো শঙ্কিত হয়ে পড়েছেন।

এ ব্যাপারে মোংলা কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের অপারেশন কর্মকর্তা লে. আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে মুঠোফোনে কালের কণ্ঠকে বলনে, এই দুই জেলেসহ পশ্চিম সুন্দরবনের বেশ কয়েক জন জেলে বনদস্যু ছত্তার বাহিনীর কাছে জিম্মি রয়েছে। বর্তমানে মৎস্য আহরণের অবরোধ চলায় দস্যুরা হয়তো গহীন বনে রয়েছে। এ কারণে তাদের নাগাল পাওয়া যাচ্ছে না। তবে কোস্টগার্ডের গোয়েন্দা তৎপরতা এবং উদ্ধার অভিযান চলছে।



মন্তব্য