kalerkantho


গফরগাঁওয়ে অপহরণের তিন মাস পর স্কুলছাত্রী উদ্ধার

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০২:০৩



গফরগাঁওয়ে অপহরণের তিন মাস পর স্কুলছাত্রী উদ্ধার

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে অপহরণের তিন মাস পর নবম শ্রেণির ছাত্রীকে উদ্ধার করেছেন গফরগাঁও থানা পুলিশ। মঙ্গলবার শ্রীপুর উপজেলার টেপির বাড়ি গ্রাম থেকে উদ্ধার করা হয় তাকে। এ সময় পুলিশ অপহরণকারী সুজনকেও (২০) গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসে। 

থানা সূত্রে জানা যায়, গৌরীপুর উপজেলার বাঙনা বাড়ি কুলিয়ার চর গ্রামের আব্দুস সালামের মেয়ে নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী মার্জিয়া আক্তার (১৪) গফরগাঁও উপজেলার চরমছলন্দ গ্রামে বোনের বাড়িতে বেড়াতে এসে গত ১৬ জুন অপহরণের শিকার হয়। গফরগাঁও উপজেলার রাঘাইচটি গ্রামের ইমান আলীর ছেলে সুজন (২০) সঙ্গীদের নিয়ে মর্জিনাকে জোরপূর্বক অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরে এ ঘটনায় মর্জিনার বড় ভাই মাহমুদুল হাসান রানা বাদী হয়ে গফরগাঁও থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেন। 

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা থানার এস আই আহসান হাবিব অপহরণকারী সুজনের মোবাইল ট্যাগ করে পাশের শ্রীপুর থানা এলাকায় অবস্থান নিশ্চিত হলেও একাধিক অভিযান চালিয়েও ছাত্রীকে উদ্ধার করতে পারেননি। মঙ্গলবার সঙ্গীয় ফোর্সসহ শ্রীপুর উপজেলার টেপির বাড়ি গ্রাম থেকে মার্জিয়া আক্তারকে উদ্ধার করা হয়। এ সময় পুলিশ অপহরণকারী সুজনকেও গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস আই আহসান হাবিব বলেন, ভিকটিমকে উদ্ধারের জন্য তিন দিনে কয়েকবার অভিযান চালিয়েছি। কিন্তু এক জায়গায় না থাকার কারণে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। গতকাল মঙ্গলবার শেষ বারের অভিযান সফল হয়েছে।

গফরগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ আবদুল আহাদ খান বলেন, উদ্ধার হওয়া ছাত্রী ও গ্রেপ্তারকৃত সুজনকে আদালতে প্রেরণ করা হবে। আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। 



মন্তব্য