kalerkantho


প্রবাসীর স্ত্রী-সন্তান অপহরণ, ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০১:০৭



প্রবাসীর স্ত্রী-সন্তান অপহরণ, ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে গতকাল মঙ্গলবার বিকালে পৌর শহরের গোহাটা অটোস্ট্যান্ডে প্রকাশ্য দিবালোকে এক সৌদি প্রবাসীর স্ত্রী ও সন্তানকে অপহরণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় রাতে অপহৃতার মেয়ে ঝুমা আক্তার বাদী হয়ে গফরগাঁও থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

দায়েরকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার দৌলতপুর গ্রামের বাসিন্দা ও সৌদি প্রবাসী বাচ্চু মিয়ার স্ত্রী তাসলিমা খাতুন (৪০) তার ছেলে মোহাম্মদ আলী (বয়স আড়াই বছর) সঙ্গে নিয়ে মঙ্গলবার দুপুরে গফরগাঁও মধ্যবাজারস্থ অগ্রণী ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন করেন। পরে কিছু কেনা কাটা করে বিকাল বেলা দৌলতপুর নিজ বাড়ি যাওয়ার উদ্দেশে গোহাটা অটোস্ট্যান্ডে যাওয়ার সময় রোস্তম আলী গোলন্দাজ উচ্চ বিদ্যালয় মার্কেটের সামনে একটি নোহা মাইক্রো গাড়ি তাদের সামনে দাড়াঁয়। 

পরে মাইক্রো থেকে অজ্ঞাত এক পুরুষ ও এক নারী নেমে তাসলিমা আক্তার ও তার সন্তানের নাকে রুমাল চেপে ধরে অজ্ঞান করে গাড়িতে তুলে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। সন্ধ্যা ৬টার দিকে তাসলিমা খাতুন তার ব্যবহৃত মোবাইল নম্বর থেকে মেয়ে ঝুমা আক্তারকে ফোন করে জানান অপহরণকারীরা ছেলেসহ তাকে অজ্ঞাত স্থানে আটকে রেখে মারধর করছে ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দিলে তাদের ছেড়ে দেওয়া হবে। অন্যথায় ক্ষতি করা হবে। এ ঘটনায় রাতে তাসলিমার মেয়ে ঝুমা আক্তার গফরগাঁও থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

ঝুমা আক্তার বলেন, অপহরণকারীরা মাকে দিয়ে ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করছে। কিন্তু তারা কোথায় আছে বা টাকা কীভাবে দিতে হবে বলছে না।

গফরগাঁও থানার ওসি (তদন্ত) মনিরুল ইসলাম বলেন, এ ব্যাপারে লিখিত একটি অভিযোগ পেয়েছি। আপাতত যে নম্বর দিয়ে অপহরণকারী চক্র যোগাযোগ করেছে সেই নম্বরটি ট্যাগ করে তাদের অবস্থান জানার চেষ্টা করছি। পরে অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



মন্তব্য