kalerkantho


'বর্তমান সরকারের সময় গ্রামীণ অর্থনীতি অত্যন্ত সুদৃঢ়'

ঝালকাঠি প্রতিনিধি   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০১:২৬



'বর্তমান সরকারের সময় গ্রামীণ অর্থনীতি অত্যন্ত সুদৃঢ়'

ছবি: কালের কণ্ঠ

শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সব সময় বলতেন দুঃখি মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর কথা। বঙ্গবন্ধু কন্য শেখ হাসিনা যখনই ক্ষমতায় আসেন, তখনই তাঁর কানে এই শব্দটি প্রতিধ্বনিত হয়। বাংলাদেশে দুঃখি মানুষের সংখ্যা শতকরা ৮৫ জন ছিল। শেখ হাসিনা সকলের মুখে হাসি ফুটিয়েছে। এখন আর গ্রামের মানুষেরও কষ্ট নেই। রাস্তা-ঘাট, ব্রিজ-কালভার্ট যেমনিভাবে হয়েছে, তেমনি স্কুল-কলেজ-মাদরাসারও উন্নয়ন হয়েছে। বর্তমান সরকারের সময় গ্রামীণ অর্থনীতি অত্যন্ত সুদৃঢ়। শনিবার বিকেলে ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার রাজাবাড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কাম সাইক্লোন শেল্টারের নতুন ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী এসব কথা বলেন। দুই কোটি ৭০ লাখ টাকা ব্যয়ে ঝালকাঠি এলজিইডি বিভাগ এই ভবনটি নির্মাণ করে। 

শেখ হাসিনা বিভিন্ন ভাতা দিয়ে মানুষকে দরিদ্রতার হাত থেকে রক্ষা করেছেন জানিয়ে শিল্পমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আছে বলেই নারীদের স্বামী মারা গেলে বিধবা ভাতা পাচ্ছেন, বয়স্ক হয়ে গেলে বয়স্ক ভাতা পাচ্ছেন। এ ছাড়াও নানা ধরনের ভাতা দিয়ে নারীদের স্বাবলম্বী করা হচ্ছে।
 
শিক্ষার্থীদের ঝড়ে পড়ার পার্সেন্টিজ কমেছে দাবি করে শিল্পমন্ত্রী বলেন, সরকার প্রাইমারী থেকে কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি দিচ্ছে। বিনামূল্যে বছরের প্রথম দিন তাদের হাতে বই তুলে দিচ্ছে। এতে করে আগের চেয়ে শিক্ষার্থীদের ঝড়ে পড়ার পার্সেন্টিজ কমেছে। শিক্ষার্থীরা আধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে বিদ্যালয়ে পড়ালেখা করছে। গ্রামের শিক্ষার্থীরাও এখন কম্পিউটার চালাচ্ছে, বিশ্বের বড় বড় দেশগুলোর শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করার সুযোগ পাচ্ছে। সব কিছুই সম্ভব হয়েছে শেখ হাসিনার কারণে। তিনি ক্ষমতায় আছেন বলেই দেশে উন্নয়নের জোয়ার বইছে। তাই আগামী নির্বাচনে শেখ হাসিনাকে আবারো ক্ষমতায় আনার জন্য নৌকায় ভোট দেওয়ার আহবান জানান শিল্পমন্ত্রী। 

মোল্লারহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. কবির হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খান সাইফুল্লাহ পনির, ঝালকাঠি পৌর মেয়র লিয়াকত আলী তালুকদার, নলছিটি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র তছলিম উদ্দিন চৌধুরী ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবুর রহমান। 



মন্তব্য