kalerkantho


মানিকগঞ্জ-২ আসন

সাবেক প্রতিমন্ত্রী মিলনের প্রার্থীতা ঘোষণা

মোবারক হোসেন, সিঙ্গাইর (মানিকগঞ্জ)   

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:৪৮



সাবেক প্রতিমন্ত্রী মিলনের প্রার্থীতা ঘোষণা

ছবি: কালের কণ্ঠ

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মানিকগঞ্জ-২ (সিঙ্গাইর-হরিরামপুর) আসন থেকে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোটের মনোনয়ন নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার ঘোষণা দিয়েছেন সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব গোলাম সারোয়ার মিলন। আজ শুক্রবার ১২টায় সিঙ্গাইর পৌরসভাস্থ নিজ বাসভবনে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে এ ঘোষণা দেন তিনি। মহাজোটের কোন দল থেকে নির্বাচন করবেন সে বিষয়টি পরিষ্কার করেননি তিনি। তবে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, চেষ্টা করছি জাতীয় পার্টি থেকে নির্বাচন করার। সেটি সম্ভব না হলে নাজমুল হুদার বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্টসহ (বিএনএফ) অথবা মহাজোটের শরিক এমন একটি দলের মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচন করবেন বলে জানিয়েছেন সাবেক এই প্রতিমন্ত্রী।

গোলাম সারোয়ার মিলন ১৯৮৬ থেকে ৯০ সাল পর্যন্ত এই আসন থেকে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য ছিলেন। ছিলেন তৎকালীন সরকারের শিক্ষা উপমন্ত্রী ও মানিকগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান। বর্তমানে সরাসরি কোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সম্পৃক্ত না থাকলেও এলাকায় এখনো রয়েছে তাঁর যথেষ্ট প্রভাব ও জনপ্রিয়তা।

সংবাদ সম্মেলনে গোলাম সারোয়ার মিলন নিজেকে যোগ্য প্রার্থী দাবি করে বলেন, তাঁর আমলে অবহেলিত জনপথ সিঙ্গাইর-হরিরামপুর তথা দক্ষিণ মানিকগঞ্জের উন্নয়নের সূচনা হয়। দীর্ঘদিন ক্ষমতার বাইরে থাকলেও বিপদ-আপদে এলাকাবাসীর পাশে ছিলেন তিনি। বর্তমান মহাজোট সরকারের আমলে সারাদেশে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। কিন্তু যোগ্য নেতৃত্বের অভাবে দক্ষিণ মানিকগঞ্জে কাঙ্খিত উন্নয়ন হয়নি। এতদিন যারা জাতীয় সংসদে এলাকাটির প্রতিনিধিত্ব করেছেন তাঁরা জনগণের প্রত্যাশা পূরণ করতে ব্যর্থ হয়েছে। এ কারণে জনপথটির উন্নয়নের স্বার্থে এলাকার অধিকাংশ মানুষ চায় আমি নির্বাচন করি। মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের একজন দেশ প্রেমিক নাগরিক হিসেবে আমার নৈতিক দায়িত্ব এলাকার উন্নয়নে এগিয়ে আসা।

সাবেক শিক্ষা উপমন্ত্রী বলেন, দেশের উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিকল্প নেই। এই সফল রাষ্ট্র নায়কের নেতৃত্বাধীন মহাজোটের সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়ে সুখী সমৃদ্ধিশালী উন্নত বাংলাদেশ গড়তে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়েছি।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে গোলাম সারোয়ার মিলন বলেন, আমি দীর্ঘদিন জাতীয় পার্টির রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলাম। এক সময় দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য, এমপি ও মন্ত্রী ছিলাম। চেষ্টা করছি জাতীয় পার্টি থেকে নির্বাচন করার। সেটা যদি সম্ভব না হয়, তাহলে নাজমুল হুদার বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট (বিএনএফ) বা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোটের শরিক অন্য কোন দল থেকে মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচন করার সম্ভাবনার কথা জানান তিনি। এবার সংসদ সদস্য হতে পারলে দক্ষিণ মানিকগঞ্জকে উন্নয়নের মডেল হিসেবে গড়ে তুলবেন বলে জানান সাবেক এই মন্ত্রী।

এ সময় সিঙ্গাইর উপজেলা জাতীয় পার্টির সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের, বর্তমান কমিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক কাজী বশির আহম্মেদ কুদ্দুস, পৌর জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক শাহানুর রহমান রাজা, হরিরামপুর উপজেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন, যুব সংহতির সভাপতি বাশার হাজারি, স্বেচ্ছাসেবক পার্টির সভাপতি লুৎফর রহমান, সিঙ্গাইর উপজেলা যুব সংহতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মজিবুর রহমান, সায়েস্তা ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির সভাপতি মোহামম্মদ আলী, জাতীয় পার্টি নেতা খন্দকার ফেরদৌস মিল্টন ও আমীর হোসেন খোকাসহ স্থানীয় জাতীয় পার্টি ও তার সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।



মন্তব্য