kalerkantho


পানির জন্য মধ্যরাতে ইবি ছাত্রীদের বিক্ষোভ

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি    

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১০:১০



পানির জন্য মধ্যরাতে ইবি ছাত্রীদের বিক্ষোভ

তীব্র পানি সংকটের কারণে মধ্যরাতে হলের বাইরে বিক্ষোভ করেছে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের দেশরত্ন শেখ হাসিনা হলের ছাত্রীরা। গতকাল মঙ্গলবার (১৯ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৯টার দিকে হল গেইটের সামনে বিক্ষোভ করেন তারা।

পরে হল প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান ঘটনাস্থলে গিয়ে আজ বুধবার সন্ধ্যার মধ্যে পানির স্থায়ী সমাধানের আশ্বাস দিলে হলে ফেরেন ছাত্রীরা।

হল সূত্র জানায়, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের দেশরত্ন শেখ হাসিনা হলের ছাত্রীরা হলের প্রধান ফটক খুলে সামনে অবস্থান নেন। এ সময় তারা হল গেইটের সামনে অবরোধ করে পানির স্থায়ী সমাধানের দাবি জানান।

ছাত্রীদের দাবি, দীর্ঘ দুই মাস ধরে হলে পানি সংকট। বিষয়টি হল কর্তৃপক্ষকে জানালেও তাঁরা কোনো   সমাধান করছেন না। গত এক সপ্তাহ ধরে পানির সংকট আরো তীব্র হয়েছে। দিনে দুই ঘণ্টা পানি থাকে  যা দিয়ে তাদের দৈনন্দিন কাজ শেষ হয় না। বাধ্য হয়ে মধ্যরাতে হলের সামনে আসতে হয়েছে তাদের। আমাদের আন্দোলন প্রভোস্ট স্যারের বিরুদ্ধে নয়। তারা পানি সংকটের স্থায়ী সমাধন চান।

ঘটনাস্থলে তাৎক্ষণিক বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর সহযোগী অধ্যাপক নাসিমুজ্জামান এসে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার চেষ্টা করেন। এ ছাড়া ছাত্র প্রতিনিধিদের মধ্যে হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জুয়েল রানা হালিম, ছাত্র মৈত্রী সভাপতি মোর্শেদ হাবিব ও ছাত্র ইউনিয়নের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এরপর রাত সাড়ে ১১টার দিকে হল প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান ঝিনাইদহ শহর থেকে ঘটনাস্থলে আসেন। প্রভোস্ট শিক্ষার্থীদের দাবি শুনে আজ বুধবার সন্ধ্যার মধ্যে স্থায়ী সমাধানের আশ্বাস দেন তিনি। প্রভোস্টের আশ্বাসে রাত ১২টায় হলে ফেরেন ছাত্রীরা।

হলের (পুরাতন ব্লকের) আবাসিক শিক্ষার্থী সুমাইয়া পারভীন অন্তরা বলেন, 'পানির সমস্যা আমাদের ব্লকে নতুন নয়। হল প্রশাসনকে বারবার জানিয়ে আসছি। এতগুলো মেয়ে দীর্ঘদিন পানির সমস্যায় থাকলেও প্রশাসন কোনো পদক্ষেপ নেয়নি।' তিনি বলেন, মাঝে মাঝে যে পানি পাওয়া যায় তা ময়লায় পূর্ণ যা ব্যবহারের অযোগ্য। এই পানি ব্যবহার করে অনেকেই এলার্জির সমস্যায় ভুগছেন।'

হল প্রশাসনের দাবি, পানি সমস্যা সমাধানে কাজ করে যাচ্ছে কর্তৃপক্ষ। পানির লাইনে কোথাও ফাটল হয়েছে। গত দুই দিনেও তা খুঁজে পাওয়া যায়নি। প্রকৌশলে এই বিশেষজ্ঞ না থাকায় একটু সময় লাগছে।

এ বিষয়ে দেশরত্ন শেখ হাসিনা হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান বলেন, 'আগামীকাল (আজ বুধবার) সকালে কাজ শুরু হবে। আশা করছি, পানি সংকটের সমাধান যাবে।' 



মন্তব্য