kalerkantho


শ্রীমঙ্গলে সড়কে গাছ ফেলে ডাকাতি, আহত ৩০

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০৯:৩৪



শ্রীমঙ্গলে সড়কে গাছ ফেলে ডাকাতি, আহত ৩০

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার লাউয়াছড়া সড়কে বিভিন্ন যানবাহনে ডাকাতি হয়েছে। এ সময় ডাকাতদের হামলায় ৩০ জন যাত্রী আহত হয়েছেন। যাত্রীদের মারধর করে মুঠোফোনসহ টাকা লুট করেছে তারা। গতকাল মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত এ ঘটনা ঘটায় ডাকাতরা। পরে রাত ১টার দিকে পুলিশ পৌঁছলে চা বাগানের দিকে পালিয়ে যায় তারা।

এ ঘটনায় গুরুতর আহতরা হলেন- গ্র্যান্ড সুলতান টি রিসোর্ট অ্যান্ড গলফ হোটেলের সহকারী ম্যানেজার ইমরান হোসেন, আশরাফুল ইসলাম, ড্রাইভার মনি সিংহ, আরিফ রানা, হেলাল উদ্দিন, সোহেল মিয়া, সুজন বৈদ্য, দুলাল মিয়া, মিনহাজ, মোহাম্মদ আলী, মো.আলম শেখ, মো. জুয়েল। তারা শ্রীমঙ্গল সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন।

আহতরা জানান, ডাকাতরা ওই সড়কে যাত্রীদের প্রায় এক ঘণ্টা অবরুদ্ধ করে রাখে। পরে রাত ১টার দিকে পুলিশ পৌঁছলে ডাকাতরা চা বাগানের দিকে পালিয়ে যায়।

জানা গেছে, গতকাল মঙ্গলবার রাত পৌনে ১১টার দিকে শ্রীমঙ্গল-লাউয়াছড়া সড়কের বিটিআরআই চা বাগানের বেলতলী এলাকায় সড়কে গাছ ফেলে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করে ২৫ থেকে ৩০ জন ডাকাত। এ সময় শ্রীমঙ্গলের রাধানগরে ফাইভ স্টার হোটেল গ্র্যান্ড সুলতান টি রিসোর্ট অ্যান্ড গলফ হোটেলের স্টাফদের গাড়ি, সিএনজিচালিত অটোরিকশার চালক ও যাত্রীদের মারধর করে মুঠোফোন ও লক্ষাধিক টাকা ছিনিয়ে নেয় ডাকাতরা।

এ বিষয়ে গ্র্যান্ড সুলতান টি রিসোর্ট এ্যান্ড গলফ হোটেলের অ্যাডমিন অফিসার মো. মাহমুদ গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমাদের হোটেলের সহকারী ম্যানেজারসহ পাঁচজন আহত হয়েছেন। ডাকাতরা প্রথমে গাড়ি ভাঙচুর করেছে। তারপর সবাইকে মারধর করে মুঠোফোন ও নগদ ১১ হাজার টাকা লুট করেছে। আহতদের শ্রীমঙ্গল উপজেলা সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।’

ডাকাতদের হামলায় আহত অটোরিকশাচালক আলম শেখ বলেন, ‘রাত সাড়ে ১১টার দিকে ডাকাতি শুরু হয়। ৩৫ জনের মতো ডাকাত ছিল। ডাকাতদের হাতে চাকু, পিস্তল, লাঠি ও দা ছিল। ২০টি গাড়িতে লুটপাট করা হয়েছে।’

এ ব্যাপারে শ্রীমঙ্গল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে এম নজরুল ইসলাম বলেন, ‘৮ থেকে ১০টি যানবাহনে ডাকাতি হয়েছে। ডাকাতির ঘটনার সঙ্গে কারা জড়িত, তা খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে।’



মন্তব্য