kalerkantho


হায় ইউপি সদস্য, হায় প্রতিবন্ধী!

মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি    

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৫:৫৯



হায় ইউপি সদস্য, হায় প্রতিবন্ধী!

মোংলা উপজেলার চাঁদপাই ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক মেম্বারের নামে প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড। ছবি : কালের কণ্ঠ

মোংলা উপজেলার চাঁদপাই ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য (মেম্বার) রেজি সরকারের  নামে প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড দেওয়া হয়েছে। তবে তিনি প্রতিবন্ধী ব্যক্তি নন। চারবার ইউপি সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। এমন একজন ব্যক্তিকে প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড দেওয়া নিয়ে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয়েছে।

তবে ওই মেম্বারের দাবি, তাঁর নামে যে প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড করা হয়েছে, তা তিনি জানেন না। ষড়যন্ত্র করে তাঁর প্রতিপক্ষ বর্তমান ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর মল্লিক এটি করে থাকতে পারেন বলে তাঁর ধারণা। 

জানা গেছে, উপজেলার মালগাজীর বাসিন্দা সুধীর সরকারের ছেলে রেজি সরকার স্থানীয় সমাজসেবা দপ্তরকে ম্যানেজ করে একটি প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড করেছেন। ভাতার কার্ড প্রতিবন্ধীদের মধ্যে বিতরণের সময় গতকাল সোমবার বিষয়টি জানাজানি হয়।

স্থানীয় ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর মল্লিক জানান, মোংলা উপজেলার সমাজসেবা কার্যালয় থেকে গত রবিবার ১০টি প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড উত্তোলন করেন তিনি। এ সময় সাবেক মেম্বার রেজি সরকারের নামে একটি প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড দেখতে পান। পরে তিনি সমাজসেবা কর্মকর্তা হাসিবুরকে বিষয়টি অবহিত করেন। এ সময় ওই সমাজসেবা কর্মকর্তা জানান, রেজি সরকার বৈধ কাগজপত্র দিয়েই ভাতার কার্ড করেছেন।

এ ব্যাপারে রেজি সরকার বলেন, কিভাবে কার্ড হলো তা তাঁর জানা নেই। সম্ভবত তাঁর স্বাক্ষর জাল করে এটি করা হয়েছে। এ কাজে তাঁর প্রতিপক্ষ বর্তমান ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর মল্লিক জড়িত থাকতে পারেন।

এদিকে সমাজসেবা কর্মকর্তা হাসিবুর রহমান বলেন, রেজি সরকার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দিয়ে প্রতিবন্ধী ভাতার জন্য আবেদন করেছেন। তাই তাঁর নামে কার্ড ইস্যু করা হয়েছে। তবে পুরোপুরি সচল হয়েও প্রতিবন্ধী ভাতা নেওয়ার জন্য এ কার্ড করে থাকলে তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মোংলা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রবিউল ইসলাম বলেন, 'যদিও বিষয়টি সংশ্লিষ্ট ইউপি ও উপজেলা চেয়ারম্যানের। তার পরও আমি এ বিষয়ে খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নিচ্ছি।'

এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান মোল্লা মো. তারিকুল ইসলাম ও উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার বলেন, তাঁরা এ ব্যাপারে কিছুই জানেন না।



মন্তব্য