kalerkantho


গোপালগঞ্জে আ. লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীর উঠান বৈঠক

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি   

১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০১:৫২



গোপালগঞ্জে আ. লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীর উঠান বৈঠক

ছবি: কালের কণ্ঠ

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নিবার্চনকে কেন্দ্র করে উঠান বৈঠক করেছেন গোপালগঞ্জ-১ আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক কমিটির সহ-সম্পাদক খন্দকার মন্জুরুল হক লাবলু। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টায় মুকসুদপুর উপজেলার মোচনা ইউনিয়নের আইকদিয়া নিজ গ্রামে মুকসুদপুর-কাশিয়ানীর সর্বস্তরের জনগনের ব্যানারে এ নির্বাচনী উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
 
এ সময় ডেপুটি এটর্নি জেনারেল কাজী এবাদত হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও মোচনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান দোলোয়ার হোসেন, মোচনা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. বতু সিকদার, মুকুসুদপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সাবেক কমান্ডার মো. ফিরোজ খানসহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মী এবং এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।
 
আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী খন্দকার মন্জুরুল হক লাবলু বলেন, আমি ছাত্র জীবন থেকে আওয়ামী রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। গোপালগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতিসহ কেন্দ্রীয় পর্যায়ে আওয়ামী লীগের নানা কমিটিতে থেকে জাতির পিতার আদর্শ বাস্তবায়নে এবং প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা অনুয়ায়ী কাজ করে আসছি। আমি এলাকাবাসীর নানা উন্নয়নে ও নানা কর্মকাণ্ডে নিজেকে আত্মনিয়োগ করেছি। বিগত সংসদ নির্বাচনগুলিতে আওয়ামী লীগের পক্ষে কাজ করেছি। আগামী একাদশ সংসদ নির্বাচনে নতুন প্রজন্মের কর্মী হিসাবে গোপালগঞ্জ-১ আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী। আমি মনোনয়ন পেলে এলাকার উন্নয়নে নিজেকে নিয়াজিত রাখব। তবে দল যাকে নৌকা প্রতীক দিয়ে মনোনয়ন দেবে আমি তার পক্ষে কাজ করব।
 
উঠান বৈঠকে উপস্থিত অন্যান্য বক্তরা বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে মুকসুদপুর-কাশিয়ানীসহ সারা দেশে উন্নয়ন হচ্ছে। আগামী নির্বাচনে দল যাকে মনোনয়ন দিবে আমরা তার পক্ষেই কাজ করব।
 
উল্লেখ্য, খন্দকার মন্জুরুল হক লাবলু গোপালগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু হলের সাবেক ভিপি, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা এবং ৯০ এর গণ-অভ্যথানের অন্যতম সংগঠক ছিলেন। গোপালগঞ্জ জেলার তিনটি আসনই আওয়ামী লীগের ভোট ব্যাংক হিসাবে পরিচিত। গোপালগঞ্জ-১ আসন (মুকসুদপুর ও কাশিয়ানীর একাংশ) থেকে যে প্রার্থীই মনোনয়ন পাবেন তিনি নিশ্চিত বিপুল ভোটে জয়লাভ করবেন। 
 
এর আগে গতকাল শুক্রবার সকালে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধীতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তিনি। পরে বঙ্গবন্ধু ও পরিবারের নিহত সদস্যদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে ফাতেহা পাঠ ও বিশেষ মোনাজাতে অংশ নেন। এ সময় দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।


মন্তব্য