kalerkantho


তানোরে বাল্যবিয়ে বন্ধ করলেন ইউএনও

তানোর (রাজশাহী) প্রতিনিধি    

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২১:৩০



তানোরে বাল্যবিয়ে বন্ধ করলেন ইউএনও

রাজশাহীর তানোরে ইতি খাতুন (১৪) নামের এক কিশোরীর বাল্যবিয়ে বন্ধ করে দিয়েছেন তানোর উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা। আজ শুক্রবার ইতির বিয়ের সকল আয়োজন সেরে ফেলেছিলেন পিতা আব্দুল হামিদ। দুই দিন আগ থেকে চলছে বিয়ের আয়োজন। 

আজ বেলা ১২টার দিকে উপজেলার পাঁচন্দর ইউনিয়নের কৃষ্ণপুর গ্রামে ইতির বাড়িতে তানোর উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তার প্রতিনিধিসহ পুলিশ হাজির হয়। পুলিশ দেখে ইতির পিতা আব্দুল হামিদ ও মা শিরিনা বিবি বিয়েবাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যান।  

পরে তারা বাল্যবিয়ে বন্ধ করেন। এ অপরাধে ইতির মামা সোহেল রানা, খালা পারভীন বিবি ও জোসনা বিবিকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ।  

এদিকে, পুঠিয়া উপজেলা অবস্থানরত বরের লোকজন বিষয়টি জানতে পেরে বিয়ে করতে তানোরে ইতির বাড়িতে আসেনি।   

বিকাল ৪টার দিকে  ইতি’র মা শিরিনা বিবি অঙ্গিকার নামা দিয়ে আটককৃক তিনজনকে ছাড়িয়ে নিয়ে যান। অঙ্গিকার নামায় ইতিকে বাল্য বিয়ে দিবে না মর্মে উলেস্নখ করেন।  

তানোর উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা চৌধুরী মো: গোলাম রাব্বী বলেন, ফোনে বিষয়টি শোনার পর পুলিশসহ আমার প্রতিনিধি ঘটনা স্থলে পাঠিয়ে বাল্য বিয়ে বন্ধ্য করি। মেয়েটি পঞ্চম শ্রেনী পর্যন্ত্ম পড়া-লেখা করে আর স্কুলে যায়নি।



মন্তব্য