kalerkantho


ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান

কুমিল্লায় যাত্রীদের কাছ থেকে নেওয়া অতিরিক্ত ভাড়া ফেরত

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুমিল্লা    

১৯ আগস্ট, ২০১৮ ২২:৩৯



কুমিল্লায় যাত্রীদের কাছ থেকে নেওয়া অতিরিক্ত ভাড়া ফেরত

ঈদকে সামনে রেখে ঢাকা-কুমিল্লা রুটে চলাচলকারী বিলাসবহুল বাসগুলোতে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় ও ফিটনেসবিহীন যানবাহনের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করছে কুমিল্লা জেলা প্রশাসন। কুমিল্লার চান্দিনায় এবং আলেখারচরে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের নেতৃত্বে এই আদালত পরিচালিত হচ্ছে। ভ্রাম্যমাণ আদালত ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মাঝখানে যাত্রীবাহী বাস থামিয়ে যাত্রীদের কাছ থেকে আদায় করে নেওয়া অতিরিক্ত ভাড়া ফেরত নিয়ে দিচ্ছে। এতে করে দারুন খুশি ঈদে ঘরমুখো যাত্রীরা। তবে ভ্রাম্যামাণ আদালতের সামনে পড়লেই যাত্রীর কাছ থেকে নেওয়া অতিরিক্ত অর্থ ফেরত দিচ্ছে বাস কর্তৃপক্ষ। আর ঈদের কারণে এতো কড়াকড়ি ব্যবস্থা না নিয়ে ঈদের পরে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার পক্ষে প্রশাসন।

জানা গেছে, কুমিল্লা-ঢাকা রুটে কুমিল্লার শাসনগাছা ও জাঙ্গালিয়া বাসস্ট্যান্ড থেকে ১০টি পরিবহনের অন্তত ২৫০টি যাত্রীবাহী বাস চলাচল করে। এর মধ্যে জাঙ্গালিয়া বাসস্ট্যান্ড থেকে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত এশিয়া এয়ারকন ২২টি, প্রিন্স ১৮টি, রয়েল ৩৫টি ও এশিয়া ট্রান্সপোর্ট ১৫টি, তিশা প্লাস ৪০টি এবং প্রিন্স, প্রাইম, করডোভা সাধারণ বাস অন্তত ৪০টি ঢাকা- কুমিল্লা রুটে চলাচল করে। আর শাসনগাছা বাসস্ট্যান্ড থেকে তিশা ২৫টি, এশিয়া লাইন ৩০টি বাস কুমিল্লা-ঢাকা রুটে চলাচল করে। ঈদে ঘরমুখো যাত্রীদের কাছ থেকে এসব বাসের মধ্যে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত বাসে প্লাটিনাম সিটের ভাড়া ৪০০ টাকা ও সাধারণ সিটের ভাড়া ৩৫০ টাকা করে নেওয়া হচ্ছে। অথচ ঈদের আগে এসব সিটের ভাড়া ছিল যথাক্রমে ৩০০ ও ২৫০ টাকা। এ কারণে গতকাল শনিবার ও আজ রবিবার ঢাকা-কুমিল্লা রুটে চলাচলকারী এসব বিলাসবহুল বাসগুলোতে চলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান। 

কুমিল্লা জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের সমন্বয়ে পরিচালিত এই অভিযান চলাকালে যে সব বাস ভ্রাম্যমাণ আদালতের সামনে পড়ে সে সব বাসের যাত্রীদের অভিযোগের পরই ভ্রাম্যামাণ আদালতের কাছে ভুল স্বীকার করে অতিরিক্ত আদায়কৃত ১০০ টাকা যাত্রীদের ফেরত দিচ্ছে বাস কর্তৃপক্ষ। 

ঢাকা থেকে কুমিল্লায় আসার সময় এশিয়া এয়ারকনের যাত্রী নুরুল হুদা সুমন জানান, তাদের বহনকারী বাসটি বিকেল সাড়ে তিনটায় কুমিল্লার চান্দিনা আসার পর ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালালে তার কাছ থেকে নেওয়া অতিরিক্ত ১০০ টাকা ফেরত দেয় বাসের কন্ট্রাক্টর। 

তিনি জানান, কিছু সময়ের জন্য হলেও মনে প্রশ্ন জেগেছে আমি কি বাংলাদেশে আছি ?

মোহাম্মদ আজিজ নামে আরেকজন যাত্রী জানান, বাসযাত্রীদের টাকা ফেরত দেওয়ার দৃশ্য আমি মোবাইলে ধারণ করেছি। এটা অবিশ্বাস্য। 

বাপ্পী ইসলাম নামে আরেক যাত্রী জানান, শুধু টাকা ফেরত দেওয়া নয় তাদের বিরুদ্ধে জরিমানা করা উচিত। ভ্রাম্যমাণ আদালতের কারো ফোন নাম্বার বিভিন্ন বাসস্ট্যান্ডে দেওয়া উচিত।
 
এ ব্যাপারে কুমিল্লার জেলা প্রশাসক আবুল ফজল মীর জানান, দুটি ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হচ্ছে। একটি কুমিল্লার চান্দিনায় আরেকটি কুমিল্লার আলেখারচরে। অতিরিক্ত ভাড়া আদায় এবং ফিটনেসবিহীন যানবাহনের বিরুদ্ধে অভিযান চালানো হচ্ছে। বেশি জোর দেওয়া হচ্ছে ফিটনেসবিহীন গাড়ির বিরুদ্ধে। অতিরিক্ত ভাড়া ফেরত দেওয়ার ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। যে সামনে পড়ছে সেটার বিরুদ্ধে এই ব্যবস্থা। ঈদের পর এ অভিযান জোরদার হবে। 

 



মন্তব্য