kalerkantho


অব্যাহত যানজটে স্থবির ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক

আবুল কাশেম হৃদয়, কুমিল্লা   

১৭ আগস্ট, ২০১৮ ০০:৫৮



অব্যাহত যানজটে স্থবির ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক

ছবি: কালের কণ্ঠ

অব্যাহত যানজটে স্থবির হয়ে পড়েছে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লা অংশ। বিশেষ করে দাউদকান্দি টোলপ্লাজা থেকে কুমিল্লার চান্দিনা পর্যন্ত ৩০/৩৫ কিলোমিটার জুড়ে দীর্ঘ যানজটে মহাভোগান্তিতে পড়েছেন ঢাকাগামী যাত্রী ও পরিবহনের চালকরা। সেই সঙ্গে শঙ্কা তৈরি হয়েছে ঈদযাত্রার দুর্ভোগের বিষয়টি। যানজটের এ ‘ধারা’ অব্যাহত থাকলে ঈদে বাড়ি ফেরা মানুষের ভোগান্তি অসহনীয় হয়ে উঠবে।

যদিও হাইওয়ে পুলিশ বলছে, যানজট নিরসনে বিরামহীনভাবে কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন তারা। কিন্তু এর প্রভাব চোখে পড়ছে না। কিছুতেই নিয়ন্ত্রণে আসছে না লাগামহীন যানজট।

মহাসড়ক ঘুরে দেখা গেছে থেমে থাকা গাড়ির দীর্ঘ লাইন। মঙ্গলবার বিকেলে শুরু হওয়া গাড়ির লাইন বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত কেবল দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতরই হচ্ছে। সেই সঙ্গে ভোগান্তি ও দুর্ভোগ বাড়ছে যাত্রীদের। ভোগান্তিতে পড়া অনেক যাত্রীই গন্তব্যে পৌঁছাতে না পেরে মাঝপথ থেকে ফিরে গেছেন। আর যাদের গন্তব্যে যাওয়া একান্তই প্রয়োজন; তারা বাধ্য হয়ে দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন।

কুমিল্লার দেবীদ্বারের ফখরুল ইসলাম সাগর নামে ঢাকাগামী এক যাত্রী জানান, বুধবার রাত ৯টায় ঢাকায় যাওয়ার জন্য রওনা হই। দীর্ঘ জ্যামে পড়ে ঢাকার যাত্রা বাতিল করে ভোররাত ৪টায় আবার দেবিদ্বার ফেরত আসতে হয়েছে। থেমে থাকা গাড়ির যে দীর্ঘ লাইন দেখা গেছে; আল্লাহই জানে, কবে নাগাদ যানজট কমবে।’

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মঙ্গলবার বিকেল থেকে দাউদকান্দি টোলপ্লাজা এলাকায় কিছুটা যানজট সৃষ্টি হয়। গাড়ির সে জট থাকতে থাকতেই রাত গড়িয়ে বুধবার সকালে কুমিল্লার চান্দিনা থেকে যানজট শুরু হয়। আর বিকেল পর্যন্ত এর দীর্ঘতা বাড়তে বাড়তে দাউদকান্দি ছাড়িয়ে যায়। যার প্রভাব দেখা গেছে বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত। 

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, চান্দিনার মাধাইয়া থেকে দাউদকান্দি টোলপ্লাজা পর্যন্ত প্রায় ২৫ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে যানজট রয়েছে। এ ছাড়া টোলপ্লাজা অপর প্রান্তেও থেমে থাকা গাড়ির একই চিত্র চোখে পড়ে।
 
এ বিষয়ে জানতে চাইলে দাউদকান্দি হাইওয়ে থানার অফিসার মো. আবুল কালাম আজাদ জানান, যানজট নিরসনে পুলিশ আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। হাইওয়ে পুলিশের পাশাপাশি দাউদকান্দি থানার অতিরিক্ত পুলিশ সদস্যরাও সড়কে দায়িত্ব পালন করছেন বলে জানান তিনি। 

মহাসড়ক পুলিশের এ কর্মকর্তার দাবি- মাত্রাতিরিক্ত পণ্যবাহী যানবাহনের চাপ, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নারায়ণগঞ্জের মোগড়াপাড়ায় শ্রমিকদের মহাসড়ক অবরোধ ও ফেনীর মহিপালে রেলওয়ে ওভারপাসে যানজটের প্রভাব এসে পরেছে দাউদকান্দি ও মেঘনা অংশে। এরপর থেকেই ধীরে ধীরে যানজটের দীর্ঘতা বাড়তে থাকে। 

দাউদকান্দি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) নুরুল ইসলাম বলেন, অন্যান্য সময়ের তুলনায় এখন মহাসড়কের গাড়ির চাপ একটু বেশি। তার সঙ্গে যোগ হয়েছে কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে গরুবোঝাই গাড়ির চাপ; সবকিছুর প্রভাবেই সড়কে এ যানজট লেগেছে। 

মহাসড়কের যানজট নিরসনে পুলিশের টহল ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে বলে জানালেন কুমিল্লার সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (দাউদকান্দি সার্কেল) মহিদুল ইসলাম। তিনি বলেন, বুধবার সকাল থেকেই দাউদকান্দি হাইওয়ে থানা ও দাউদকান্দি মডেল থানা পুলিশ বিরামহীন ভাবে দায়িত্ব পালন করছে। আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তিনি আশাবাদি গাড়িগুলোকে শৃঙ্খলাবদ্ধ রাখতে পারলেই যানজট কমে আসবে।



মন্তব্য