kalerkantho


চার ঘণ্টা পর নিখোঁজ শিশুর মৃতদেহ উদ্ধার

ফেনী প্রতিনিধি   

১৫ আগস্ট, ২০১৮ ১৮:৫৯



চার ঘণ্টা পর নিখোঁজ শিশুর মৃতদেহ উদ্ধার

ফেনীতে একটি ডোবা থেকে বেহেশতী আক্তার মীম(৭)  নামে এক কন্যা শিশুর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ বুধবার সকালে ১১টার দিকে পৌর এলাকার আরামবাগে নির্মাণাধীন ভবনের পাশে ডোবা থেকে তার মৃতদেহটি উদ্ধার করা হয়। এর আগে সে চার ঘণ্টা নিখোঁজ ছিলো।

স্থানীয় এলাকাবাসী ও নিহতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়ার মো. কবির পেশায় দিনমজুর এবং দীর্ঘদিন থেকে পৌর এলাকার আরামবাগে ভাড়া বাসায় বসবাস করে আসছেন। তার মেয়ে বেহেশতী আক্তার মীম (৭) প্রতিদিনের মত আজ বুধবার সকালে পার্শ্ববর্তী মক্তবের উদ্দেশে বের হয়। কিন্তু মক্তবের সময় পেরিয়ে গেলেও বাসায় না ফিরলে খোঁজাখুজি শুরু হয়। এক পর্যায়ে স্থানীয়রা পার্শ্ববর্তী নির্মাণাধীন ভবনের পাশের ডোবায় নিথর দেহ দেখে পুলিশে জানায়। পরে পুলিশ গিয়ে ডোবা থেকে মীমের মরদেহ উদ্ধার করে।

পরিবার সূত্রে আরো জানা যায়, নিহত মীম স্থানীয় আরামবাগ প্রিপেটোরী স্কুলের নার্সারীর ছাত্রী ছিল।  

এ বিষয়ে মীমের মা নূরনাহার জানান, রাতে মীম তার দাদীর সাথে ঘুমায়। সকালে মক্তবের উদ্দেশে বেরিয়ে আর ফেরেনি। মক্তবের শিক্ষক আবদুল করিম জানান, সকালে মক্তবে আসেনি মীম। পুলিশ মীমের মরদেহ উদ্ধার করে ফেনী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।
 
এ ব্যাপারে ফেনী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রাশেদ খান চৌধুরী বলেন, মীম নামে এক কন্যা শিশু তার দাদীর বাসা থেকে মক্তবে যাওয়ার পথে নিখোঁজ  হয়। চার ঘণ্টা পর পার্শ্ববর্তী ডোবা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। বর্তমানে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহটি হাসপাতালের মর্গে রয়েছে।



মন্তব্য