kalerkantho


পুলিশের আয়োজনে ফুটবল টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন কচুয়া উপজেলা একাদশ

চাঁদপুর প্রতিনিধি   

১০ আগস্ট, ২০১৮ ২২:৫৩



পুলিশের আয়োজনে ফুটবল টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন কচুয়া উপজেলা একাদশ

ছবি: কালের কণ্ঠ

ফুটবল যে শুধু আনন্দ কিংবা বিনোদনের জন্য নয়, তা আবারো প্রমাণ করেছে চাঁদপুরের পুলিশ বিভাগ। যুবকদের সামাজিক ব্যাধি থেকে দুরে রাখতে গত একবছর ধরে জেলার সর্বত্র চাঁদপুরে মাদক, নারী নির্যাতন, বাল্যবিবাহ এবং জঙ্গিবাদ বিরোধী প্রচারণা যোগাতে ফুটবল টুর্নামেন্টে অংশ নিয়েছিল কিশোর থেকে যুব ফুটবলাররা। 

আর তাতে ব্যাপক সাড়া পড়ে যায়। নানা অবক্ষয় থেকে ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করে চাঁদপুরের হাজারো যুবক। এমন ব্যতিক্রধর্মী আয়োজনে সাধুবাদ জানায় মাঠে উপস্থিত দর্শকরাও। শুক্রবার শহরের বাবুরহাট স্কুল মাঠে জমজমাট এই ফাইনাল ম্যাচ উপভোগ করতে বিপুল সংখ্যক দর্শকের সমাগম ঘটে। আয়োজন করা হয় ডিসপ্লের তালে দেশাত্ববোধক ও মাদকবিরোধী গান। 

ফাইনালে কচুয়া উপজেলা একাদশ ২-০ গোলে হাজীগঞ্জ একাদশকে পরাজিত করে ম্যাচ চ্যাম্পিয়ন হয়। ফাইনাল খেলায় চ্যাম্পিয়ন ও রানার্স আপ দলের হাতে ট্রফি ও প্রাইজ মানি তুলে দেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া ও পুলিশ মহাপরিদর্শক ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী। এ সময় পুলিশ প্রধান বলেন, চাঁদপুরে পুলিশ যে ফুটবল টুর্নামেন্টের আয়োজন করেছে তা একটি যুগান্তকারী ঘটনা। এই জন্য তিনি জেলার বিদায়ী পুলিশ সুপার শামসুন্নাহারের প্রশংসা করেন। 

সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপির সভাপতিত্বে এই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর এমপি, ড. মোহাম্মদ শামছুল হক ভূঁইয়া এমপি, পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক, আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় নেতা সুজিত রায় নন্দী, জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ওচমান গনি পাটোয়ারী, বসুন্ধরা গ্রুপের উপদেষ্টা খাজা আহম্মাদুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি, পৌর মেয়র নাসিরউদ্দিন আহম্মদ, সাধারণ আবু নঈম দুলাল প্রমুখ।
   
অন্ত:জেলা মাদক, নারী নির্যাতন, বাল্যবিবাহ ও জঙ্গিবাদ বিরোধী প্রচারণার এই ফুটবল টুর্নামেন্ট সম্পর্কে চাঁদপুরের পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার জানান, গত এক বছরে ১৪ শ ৭১টি ম্যাচে এই টুর্নামেন্টে ২২ হাজার ৫ শ জন যুবক অংশ নেয়। আর এদের সঙ্গে মাদক, নারী, নির্যাতন, বাল্যবিবাহ ও জঙ্গিবাদ বিরোধী শপথে অংশ নিয়েছেন চাঁদপুরের প্রায় ৮ লাখ নানা বয়সী মানুষ। তিনি আরো বলেন, চাঁদপুর থেকে এই যাত্রা শুরু হয়েছে মাত্র। তবে আগামীতে এর বিস্তার ঘটার আশাবাদ ব্যক্ত করেন, পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার।

অন্যদিকে, এমন ব্যতিক্রম ফুটবল আয়োজনে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছে জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা বাবু ও চাঁদপুর জেলা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ। 

চাঁদপুর জেলা পুলিশের আয়োজনে ভিন্নমাত্রার এই ফুটবল টুর্নামেন্টকে সফল করতে অন্যদের মধ্যে সার্বিক সহযোগিতা করেছেন, বিশিষ্ট সমাজসেবক মোহাম্মাদ হেলাল, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আফজাল হোসেন প্রমুখ।



মন্তব্য