kalerkantho


বরগুনার বামনায় সড়ক সংস্কারের দাবিতে মানববন্ধন

বামনা(বরগুনা) সংবাদদাতা   

২২ জুলাই, ২০১৮ ১৭:৪২



বরগুনার বামনায় সড়ক সংস্কারের দাবিতে মানববন্ধন

বরগুনার বামনা উপজেলার গোল চত্বর থেকে খোলপটুয়াগামী পর্যন্ত সড়কটির দ্রুত সংস্কারের দাবিতে মানববন্ধন করা হয়েছে। আজ রবিবার দুপুর ১২টায় খানাখন্দে ভরা ওই সড়কের পাশে এ কর্মসূচি পালন করা হয়। মানববন্ধন শেষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

বামনা প্রেসক্লাব ও উপজেলা সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলনের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন বামনা প্রেসক্লাব সভাপতি ওবায়দুল কবির আকন্দ দুলাল, বামনা সারওয়ারজান পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ও আওয়ামী লীগ নেতা দেলোয়ার হোসেন জমাদ্দার, বাংলাদেশ আওয়ামী শ্রমিক লীগ সভাপতি আখতারুজ্জামান সিপার, সাধারণ সম্পাদক নেসার উদ্দিন, সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন সভাপতি মনোতোষ হাওলাদার, সাধারণ সম্পাদক রতন মালাকর, ছাত্রলীগ সভাপতি মোর্শেদ শাহরিয়া গোলদার প্রমুখ।

এ সময় বক্তারা জানান, প্রায় ৩ মাস ধরে শোনা যাচ্ছে এই সড়কটির টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। কিন্তু উপজেলা এলজিইডি অফিস জানেই না কে এই কাজের ঠিকাদার। তাই কাজ শুরুর আগে এই বর্ষা মৌসুমে খানাখন্দগুলো ভরাট করে যাতে যানবাহন ও পথচারী চলাচল করতে পারে সে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান। 

এ ব্যাপারে বামনা উপজেলা সহকারি প্রকৌশলী মো. মজিবর রহমান জানান, বামনা খোলপটুয়া সড়কটির টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। তবে কোন ঠিকাদার কাজটি পেয়েছে তা তার জানা নাই। 

তিনি আরো জানান, বর্ষা শেষ না হলে সড়কের নির্মাণ কাজ শুরু হবে না। 

বামনা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জেবুন নাহার বলেন, যেহেতু সড়কটির টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে সেহেতু এখন আপাতত চলাচলের জন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সাথে কথা বলে সড়কের খানাখন্দ ভরাটের ব্যবস্থা নিব।

এদিকে বামনা উপজেলার স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, ২০১৩-১৪ অর্থবছরে ৩৫ লাখ টাকা ব্যয়ে এই সড়কটির দুই কিলোমিটার সংস্কার করা হয়েছিল। পরবর্তীতে আর কোনো বরাদ্দ না আসায় সড়কের বাকী অংশ সংস্কার করা সম্ভব হয়নি।

উল্লেখ্য, বামনা উপজেলা সদরের স্মৃতিসৌধ চত্বর থেকে খোলপটুয়া বাজার পর্যন্ত পাঁচ কিলোমিটার সড়ক দীর্ঘদিন ধরে সংস্কারের অভাবে চলাচলে অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। সড়কটির পুরো অংশজুড়ে অসংখ্য খানাখন্দ রয়েছে। বর্তমান বর্ষা মৌসুমে রাস্তায় পানি জমে যাওয়ায় যানবাহন চলাতো দূরের কথা পথচারীদের পায়ে হেঁটে অতিক্রম করাই কষ্টকর। এ কারণে সংস্কারের অভাবে খানাখন্দে ভরা এই সড়কটি দিয়ে প্রতিদিন ট্রাক, বাস, মাহেন্দ্র, ভটভটি, অটোবাইক ও ভ্যান ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে। এর ফলে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটছে।



মন্তব্য