kalerkantho


এইচএসসি পরীক্ষা

মুরাদনগরে ২৬ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ২৩টিতেই নেই জিপিএ-৫

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ জুলাই, ২০১৮ ১৯:২২



মুরাদনগরে ২৬ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ২৩টিতেই নেই জিপিএ-৫

কুমিল্লা জেলার মুরাদনগর উপজেলায় এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষায় অংশ নেওয়া ২৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ২৩টিতেই নেই জিপিএ-৫। এতে করে জিপিএ-৫ প্রত্যাশী শিক্ষার্থীরা যেমন হতাশ পছন্দের বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি নিয়ে, তেমনি চিন্তার ভাজ পড়েছে অভিভাবকদের কপালে ।  

শুধুমাত্র অধ্যাপক আব্দুল মজিদ কলেজ থেকে ৩৪ জন, বেগম জাহানারা হক ডিগ্রি কলেজ থেকে তিনজন ও চাঁন মিয়া মোল্লা ডিগ্রি কলেজ থেকে একজন জিপিএ-৫ পেয়েছেন।

জানা গেছে, জিপিএ-৫ না পাওয়া উপজেলার বাকি ২২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে এইচএসসি ও সমমান পরিক্ষায় মোট ২ হাজার ৫৮৪ জন অংশ নিয়ে ১ হাজার ৭৪০ জন কৃতকার্জ হয়েছে।

আরো জানা গেছে, উপজেলার ২৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে গড় পাসের হাড় ৭২.৪৮ শতাংশ। আর সর্বনিম্ন পাসের হার ১৮.৩৬ শতাংশ বাইড়া এম আরিফ স্কুল এন্ড কলেজে এবং সর্বোচ্চ পাশের হার ৮৮.২৭ শতাংশ অধ্যাপক আব্দুল মজিদ কলেজে ।

শিক্ষার্থী সুমন বলেন, উপজেলার ডি আর সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরিক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়ে ভালো ফলাফলের আশা নিয়ে কাজী নোমান আহমেদ ডিগ্রি কলেজে ভর্তি হই আমিসহ চার বন্ধু। কিন্তু এইচএসসি পরিক্ষায় জিপিএ-৫ হাতছাড়া হওয়ায় মেডিক্যালে ভর্তি ফরম টানার যোগ্যতা হাড়িয়ে স্বপ্নভঙ্গের বেদনায় নিল। কারণ অঢেল টাকা খরচ করে প্রাইভেটে পড়ার মতো সামর্থ্য আমাদের নেই।

সুমন আরো বলেন, কাজী নোমান আহমেদ ডিগ্রি কলেজ থেকে এইচএসসি পরিক্ষায় ৬৫২ জন অংশ নিয়ে ৪৯৪জন পাশ করলেও জিপিএ-৫ পায়নি কেউ।

এ ব্যাপারে উপজেলার মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা শফিউল আলম তালুকদার বলেন, গত বছরের ফলাফলের তুলনায় এবার পাশের হার বৃদ্ধি পেলেও ভালো ফলাফলে অনেক পিছিয়ে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিতু মরিয়ম বলেন, গত বছর পাশের হার ছিল ৩২.৩৫ শতাংশ, এবার ৭২.৪৮ শতাংশ। তুলনামূলকভাবে এবার শিক্ষার্থীরা ভালো ফলাফল করেছে।



মন্তব্য