kalerkantho


নড়াইলে মোবাইল চুরির ঘটনায় যুবককে নাকে খত

নড়াইল প্রতিনিধি   

১৭ জুলাই, ২০১৮ ০০:১২



নড়াইলে মোবাইল চুরির ঘটনায় যুবককে নাকে খত

নড়াইলে একটি মোবাইল চুরির ঘটনায় শিপন রায় নামে এক যুবককে নাকে খত দেবার ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঁদাবাজির অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় শালিশকারী ৫ মাতবরকে রবিবার রাতে আটক করে পুলিশ। পরে সোমবার দুপুরে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়।

গত শনিবার বিকালে সদরের বিছালী ইউনিয়নের রুখালী গ্রামে এই শালিশের ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, স্থানীয় বিছালী ইউনিয়ন পরিষদের সামনে বড়পর্দায় বিশ্বকাপের খেলা চলছিলো। এ সময় পাশের শৈলেন্দ্রনাথ সিকদারের বাড়ি থেকে একটি মোবাইল ফোন ও কিছু ভারতীয় রুপি চুরি হয়ে যায়। এই ঘটনার জন্য শিপন রায়কে দায়ী করে শনিবার(১৫ জুলাই) শৈলেন্দ্রনাথ সিকদারের বাড়িতে শালিশ বসে। শালিশে রুখালী গ্রামের ইউপি মেম্বর হাফিজুর রহমানসহ স্থানীয় মাতব্বর গামা বিশ্বাস, বিশ্ব বিশ্বাস, মৃত্যুঞ্জয় বিশ্বাস, সুবুদ্ধি মজুমদার উপস্থিত ছিলেন। শালিশে দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় শিপন রায়কে নাকখত দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

শিপনের অভিযোগ, তার কাছে আড়াই লক্ষ টাকা জরিমানা দাবী করা হয়। জরিমানার টাকা না দিলে তাকে গ্রাম থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হবে বলে হুমকী দেওয়া হয়।

এসব অভিযোগের বিষয়ে জানতে শৈলেন্দ্রনাথ সিকদারের মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে তা বন্ধ পাওয়া যায়।

শালিশে অংশগ্রহণকারী ইউপি সদস্য হাফিজুর রহমান বলেন, দোষী সাব্যস্ত হয়ে মোবাইল ফেরত দিয়েছে শিপন। চাঁদাবাজীর কথা সঠিক নয়, এ ছাড়া নাকে খত দেবার ঘটনা আমি জানি না।

নড়াইল পুলিশ সুপারের কন্ট্রোল রুম থেকে জানানো হয়, স্থানীয় একটি মহল পুলিশ সুপারকে ঘটনাটি অবগত করলে রবিবার(১৬ জুলাই) গভীর রাতে শালিশে অংশগ্রহণকারী ৫ মাতবরকে আটক করে পুলিশ। পরে সোমবার দুপুরে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়।

আটকের ঘটনার ব্যাপারে নড়াইল সদর থানার ওসি আনোয়ার হোসেন কিছু জানেন না বলে জানান। এদিকে বিছালী এলাকায় দুটি পুলিশ ফাঁড়ি থাকা সত্ত্বেও চুরির ঘটনায় পুলিশকে না জানিয়ে স্থানীয়ভাবে শালিশে এই ধরনের বিচারের ব্যবস্থা করায় এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে।



মন্তব্য