kalerkantho


প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় সরকারের যথেষ্ট প্রস্তুতি আছে : মায়া

নীলফামারী প্রতিনিধি   

১৬ জুলাই, ২০১৮ ২২:০৩



প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় সরকারের যথেষ্ট প্রস্তুতি আছে : মায়া

ফাইল ছবি

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম বলেছেন, 'প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় সরকারের যথেষ্ট প্রস্তুতি আছে। যে ত্রাণ মজুত আছে, তা নেওয়ার মত মানুষ নেই।' আজ
সোমবার বেলা ১১টার দিকে নীলফামারী জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির বিশেষ সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, 'আবহাওয়া পরিবর্তনের কারণে কখনো বন্যা, কখনো খড়া দেখা যায়। বলতে গেলে এখন বছরের সাত মাসই প্রকৃতিক দুর্যোগ লেগেই থাকে। শিলা বৃষ্টি, পাহাড়ী ধ্বসে মানুষ বিপদগ্রস্ত হয়ে পড়েছে। এ ছাড়াও সময়ে-অসময়ে বজ্রঘাতে দেশের মানুষ অকালে প্রাণ হারাচ্ছে। শেখ হাসিনার বলিষ্ট নেতৃত্বে এসব প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলা করতে সক্ষম হচ্ছে সরকার। এতো প্রাকৃতিক ক্ষতির মাঝেও রোহিঙ্গা সমস্যা রয়েছে। তাদের স্বাস্থ্য সেবা, খাদ্য, চিকিৎসা, বস্ত্রসহ নানা বিষয়ে সরকার খেয়াল রাখছে।'

পানি উন্নয়ন বোডের কর্মকর্তাদের সজাগ থাকার নির্দেশ দিয়ে মন্ত্রী বলেন, 'বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ রিলিফ চায় না, তারা বাধ রক্ষা চায়। বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাধ সংস্কার ও রক্ষা করতে পারলে শতকরা ৭৫ ভাগ বন্যা থেকে রক্ষা পাবে এলাকার মানুষজন।'

এ সময় নীলফামারীর জেলার বন্যার পূর্বপ্রস্ততি হিসেবে ৬০০ বান্ডিল টেউটিন, ১৮ লাখ টাকা, ২ হাজার প্যাকেট শুকনা খাবার, ২০০ মেট্রিক টন চাল ও  ৬টি ইঞ্জিনচালিত নৌকার বরাদ্দ প্রদান করেন তিনি।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খালেদ রহিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. শাহ কামাল, নীলফামারী-১ আসনের সংসদ সদস্য আফতাফ উদ্দিন সরকার, নীলফামারী- ৩ আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপক গোলাম মোস্তফা, পুলিশ সুপার আশরাফ হোসেন, নীলফামারী পৌরসভার মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুজার রহমান, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মামুন ভূঁইয়া, জেলা ত্রাণ কর্মকর্তা এটি এম আখতারুজ্জামান প্রমুখ।

সভা শেষে মন্ত্রী রংপুর, লালমনিরহাট, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধার উদ্দেশে রওনা দেন।



মন্তব্য