kalerkantho


করিমগঞ্জে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে হত্যা করে স্বামীর আত্মহত্যা

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি   

১২ জুলাই, ২০১৮ ০১:৪৪



করিমগঞ্জে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে হত্যা করে স্বামীর আত্মহত্যা

কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে হত্যা করে আত্মহত্যা করেছে তার স্বামী। উপজেলার নিয়ামতপুর ইউনিয়নের দেওপুর কাজলাহাটি গ্রামে এ মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটে।

বুধবার সকালে তাদের ঘর থেকে লাশ দুটি উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, নিয়ামতপুর ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার জহুর উদ্দিনের ছেলে সম্রাট মিয়া (২৫) মঙ্গলবার রাতে কোনো এক সময় তার স্ত্রী শোভা আক্তারকে (২০) গলাটিপে হত্যা করে সে নিজেই ঘরের ফ্যানের সঙ্গে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। শোভা পাশের ইটনা উপজেলার বারিবাড়ি ইউনিয়নের শিমুলবাগ গ্রামের আব্দুল হকের মেয়ে।

পুলিশ বলছে, শোভার লাশটি খাটে শোয়ানো ছিল। আর সম্রাটের লাশ খাটের সামনে ফ্যানে ঝুলছিল। সে একটি কাপড় দিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।

সম্রাটের পরিবারের লোকজন জানায়, সাত মাস আগে তাদের পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। শোভা তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিল। মঙ্গলবার রাতে তারা পরিবারের সঙ্গে টিভি দেখে ঘুমাতে যায়। সকাল নয়টার দিকে তারা ঘুম থেকে না উঠায় পাশের রুম থেকে সিলিং ভেঙ্গে ঘরে ঢুকে স্বামী-স্ত্রীকে মৃত অবস্থায় দেখতে পায়। পরে পুলিশ গিয়ে লাশগুলো উদ্ধার করে। কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নাজমুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

ঘটনা জানাজানির পর এলাকার শত শত লোক ওই বাড়িতে ভিড় জমায়। এ ঘটনায় করিমগঞ্জ থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

করিমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মুজিবুর রহমান ঘটনাস্থল থেকে জানান, খবর পেয়ে তারা লাশ দুটি উদ্ধার করেছে। প্রাথমিক তদন্তে দেখা গেছে, সম্রাট তার স্ত্রী শোভাকে গলাটিপে হত্যা করেছে। পুলিশ যখন লাশটি উদ্ধার করে তখন ওর মুখে রক্ত ছিল। আর সম্রাট স্ত্রীকে হত্যা করে নিজেও তাদের রুমে ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করে।



মন্তব্য