kalerkantho


স্ত্রীকে রাস্তায় ডেকে এনে গলা কেটে হত্যা করল স্বামী

নিজস্ব প্রতিবেদক, নোয়াখালী   

১৭ জুন, ২০১৮ ২০:০২



স্ত্রীকে রাস্তায় ডেকে এনে গলা কেটে হত্যা করল স্বামী

শ্বশুর বাড়ী গিয়ে স্ত্রীকে রাস্তায় ডেকে এনে গলায় ছুরি চালিয়ে দেয় স্বামী। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পথে ওই নারীর মৃত্যু ঘটে। নির্মম এ ঘটনা ঘটেছে রবিবার দুপরে, নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার নোয়াখোলা ইউনিয়নের সাত্ররা গ্রামে।

নিহত প্রিয়া বেগম (২০) নোয়াখোলা ইউনিয়নের সাত্ররা গ্রামের ননা মিয়ার মেয়ে। তার স্বামী মো. আল আমিন সাহাপুর ইউনিয়নের কালা মিয়ার ছেলে। ঘটনার পর থেকে আল আমিন পলাতক রয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, দুই বছর আগে আল আমিন ও প্রিয়া বেগমের বিয়ে হয়। এর আগে সে প্রিয়ার বড় বোনকে বিয়ে করলেও তার বোন মারা যাবার পর ছোট বোন প্রিয়াকে বিয়ে করে। বিয়ের পর থেকে আল আমিন মাদকাসক্ত হয়ে প্রিয়াকে মারধর করতো। এ নিয়ে তাদের বিরোধ চলছিলো। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় লোকজন সালিশি বৈঠক করেলেও তাদের বিরোধের অবসান হয়নি।

এতে অতিষ্ঠ হয়ে প্রিয়া গত ৬ মাস ধরে সাত্ররা গ্রামে বাপের বাড়ীতে অবস্থান করছিলো। রবিবার দুপুরে আল আমিন শ্বশুর বাড়ী এসে প্রিয়াকে ডেকে তাদের বাড়ীর কাছাকাছি সড়কের ওপর নিয়ে যায়। রাস্তায় গিয়ে প্রিয়াকে গলায় ছুরি দিয়ে আঘাত করে রক্তাক্ত অবস্থায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। তার গোঙ্গানির শব্দ শুনে স্থানীয় লোকজন তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেলা সদরের একটি বেসরকারী হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে।  চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

চাটখিল থানার ওসি ইমামুল হক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, খবর পেয়ে সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়। নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নেয়া পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনার পর থেকে আল আমিন পলাতক রয়েছে। তাকে ধরার জন্য পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। এ ঘটনায় প্রিয়ার পরিবারের পক্ষ থেকে একটি হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে।



মন্তব্য