kalerkantho


আওয়ামী লীগের কোন্দলে সরিষাবাড়ীর ৪০ বিদ্যালয়ের দপ্তরি নিয়োগ স্থগিত

জামালপুর প্রতিনিধি   

২৭ মে, ২০১৮ ২১:৫৭



আওয়ামী লীগের কোন্দলে সরিষাবাড়ীর ৪০ বিদ্যালয়ের দপ্তরি নিয়োগ স্থগিত

আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের কোন্দলের কারণে জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার ৪০টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরি কাম নৈশ প্রহরী নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত হয়ে গেছে। আজ রবিবার সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে এ পরীক্ষা চলাকালে সাবেক সংসদ সদস্য ডা. মুরাদ হাসানের সমর্থক যুবলীগের নেতা-কর্মীরা সেখানে হামলা চালিয়েছে। হামলাকারীরা নিয়োগ বোর্ডের একজন উপদেষ্টার প্রতিনিধি দৈনিক যুগান্তরের সাংবাদিক জহুরুল ইসলাম ঠান্ডুকে মারধর করেছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাৎক্ষণিক নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত ঘোষণা করেছেন।

জানা গেছে, আজ রবিবার সকাল দশটায় সরিষাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে উপজেলার ৪০টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরি কাম নৈশ প্রহরী পদে নিয়োগের মৌখিক পরীক্ষা শুরু হয়। চার সদস্যের নিয়োগ বোর্ডে উপস্থিত ছিলেন নিয়োগ বোর্ডের উপদেষ্টা সরিষাবাড়ী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বিএনপিনেতা ফরিদুল কবীর তালুকদার শামীমের প্রতিনিধি দৈনিক যুগান্তরের সাংবাদিক জহুরুল ইসলাম ঠান্ডু, স্থানীয় সংসদ সদস্য মামুনুর রশীদ যোয়ার্দারের প্রতিনিধি তার ভাই এনামুল হক যোয়ার্দার, সভাপতি সরিষাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম ও সদস্য সচিব উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল হালিম।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সরিষাবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের কোনো নেতা চার সদস্যের এই নিয়োগ বোর্ডের সদস্য না হলেও উপদেষ্টা স্থানীয় সংসদ সদস্য জাপা নেতা মামুনুর রশিদ যোয়ার্দার, সদস্য সচিব প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল হালিম ও সভাপতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলামের সাথে যোগসাজশ করে পর্দার আড়াল থেকে মূলত: উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছানোয়ার হোসেন বাদশা ও সাধারণ সম্পাদক উপাধ্যক্ষ হারুন অর রশিদ এই নিয়োগ কব্জা করার চেষ্টা চালাচ্ছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

প্রতিজন প্রার্থীর কাছ থেকে অগ্রিম সর্বনিম্ন ৪ থেকে ৫ লাখ টাকা এবং সর্বোচ্চ ১০ লাখ টাকা করে ঘুষ নেয়ার অভিযোগ রয়েছে। ৪০ জন দপ্তরি কাম নৈশ প্রহরী নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে সাবেক সংসদ সদস্য আওয়ামী লীগ নেতা ডা. মুরাদ হাসানের সাথেও তাদের গোপন আঁতাত রয়েছে। ৪০টির মধ্যে ডা. মুরাদ হাসানকে ১৩টি পদে তার মনোনীত প্রার্থী নিয়োগ দেওয়ার কথা ছিল।

কিন্তু আজ রবিবার এ নিয়োগের মৌখিক পরীক্ষা আয়োজনের মধ্য দিয়ে ডা. মুরাদ হাসানের মনোনীত প্রার্থীদের বাদ দিয়ে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার আশঙ্কা দেখা দেওয়ায় ডা. মুরাদ হাসানের সমর্থক উপজেলা যুবলীগের সভাপতি এ কে এম আশরাফুল ইসলামের নেতৃত্বে যুবলীগের কতিপয় নেতাকর্মী নিয়োগ পরীক্ষার শুরুতেই সেখানে হামলা চালান। নিয়োগ বোর্ডের উপদেষ্টা স্থানীয় সংসদ সদস্যের প্রতিনিধি এনামুল হক যোয়ার্দার দ্রুত সেখান থেকে কেটে পড়েন। উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের প্রতিনিধি সাংবাদিক জহুরুল ইসলাম ঠান্ডু না যেতে চাইলে যুবলীগের নেতা-কর্মীরা তাকে মারতে মারতে দোতলা থেকে নিচতলায় নিয়ে যায়। এ সময় স্থানীয় কয়েকজন সাংবাদিক তাকে উদ্ধার করতে গেলে তারাও আহত হন। হামলাকারী যুবলীগের নেতাকর্মীরা এ সময় স্লোগান দিয়ে উপজেলা পরিষদ ত্যাগ করে। হামলায় গুরুতর আহত সাংবাদিক জহুরুল ইসলাম ঠাণ্ডুকে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সরিষাবাড়ী উপজেলা যুবলীগের সভাপতি এ কে এম আশরাফুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, এই নিয়োগকে কেন্দ্র করে জামাত বিএনপি, জাতীয় পার্টি ও সাধারণ নিরীহ প্রার্থীদের কাছ থেকে চার থেকে পাঁচ লাখ টাকা এবং সর্বোচ্চ ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত উৎকোচ আদায় করা হয়েছে। নিয়োগ পরীক্ষার শুরুতেই নিয়োগ বোর্ডের সদস্যরা উপজেলা প্রশাসনের ওপর চাপ প্রয়োগ করে নিয়োগ সম্পন্ন করার চেষ্টা চালায়। এ নিয়ে সাধারণ প্রার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে তীব্র উত্তেজনা দেখা দেয়। সার্বিক বিবেচনায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মৌখিক পরীক্ষা স্থগিত করে দেন। এ ঘটনার সাথে আমি বা আমার যুবলীগের নেতা-কর্মীদের কোনো সম্পৃক্ততা নেই।

অভিযোগ প্রসঙ্গে সরিষাবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক উপাধ্যক্ষ হারুন অর রশিদ বলেন, দপ্তরি নিয়োগ প্রক্রিয়ার সাথে আমিসহ উপজেলা আওয়ামী লীগের কেউ জড়িত নই। নিয়োগ বোর্ডের সদস্যও নই আমরা। ভাগবাটোয়ারার জন্য যুবলীগ নেতা এ কে এম আশরাফুল ইসলাম নিয়োগ বোর্ডে হামলা চালিয়ে জঘন্যতম কাজ করেছে। আমি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

সরিষাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. সাইফুল ইসলাম কালের কণ্ঠকে বলেন, নিয়োগ বোর্ডে হামলার ঘটনার পর নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। যে সাংবাদিক নির্যাতনের স্বীকার হয়েছেন তিনি এখানে পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে আসেননি। তিনি নিয়োগ বোর্ডের একজন উপদেষ্টার প্রতিনিধি হিসেবে সেখানে উপস্থিত ছিলেন।


মন্তব্য