kalerkantho


জামালপুরের মেলান্দহে গার্মেন্টসকর্মী হত্যা, সড়ক অবরোধ

জামালপুর প্রতিনিধি   

২৫ মে, ২০১৮ ১৬:০৪



জামালপুরের মেলান্দহে গার্মেন্টসকর্মী হত্যা, সড়ক অবরোধ

জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলায় জাকির হোসেন (৩৭) নামে একজন গার্মেন্টসকর্মীকে হত্যা করেছে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা। দুর্বৃত্তরা তাকে হত্যার পর কৌশলে চিকিৎসার কথা বলে গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে মেলান্দহ উপজেলা হাসপাতালে রেখে পালিয়ে যায়। নিহত জাকির উপজেলার চরবানিপাকুরিয়া ইউনিয়নের আবুল কাশেমের ছেলে। 

জানা গেছে, নিহত জাকির হোসেন ও তার স্ত্রী চায়না বেগম নারায়ণগঞ্জের মডেল গার্মেন্টেসে কাজ করতেন। দুই দিন আগে তারা বাড়িতে বেড়াতে আসেন। প্রতিবেশী মামুন নামের একজন মাদক ব্যবসায়ী ও মাদকাসক্ত যুবক গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে তাকে তার বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে যায়। এরপর রাতে তিনি আর বাড়িতে ফিরে যাননি। মেলান্দহ উপজেলা হাসপাতালে জাকির হোসেনের লাশ পড়ে আছে শুনে আজ শুক্রবার সকালে নিহতের স্বজনরা হাসপাতালে গিয়ে তাকে শনাক্ত করেন। এ ঘটনার পর থেকে মামুনও নিখোঁজ রয়েছে। 

এ ঘটনায় পুলিশ একই এলাকার রবিন মাহমুদ নামের এক যুবককে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। এ ব্যাপারে মেলান্দহ থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। 

এ প্রসঙ্গে মেলান্দহ উপজেলা হাসপাতালের কর্তব্যরত ডা. মোহাম্মদ মাঈনুদ্দিন কালের কণ্ঠকে বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে কয়েকজন লোক জাকির হোসেনকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসে। 

এদিকে গার্মেন্টসকর্মী জাকির হত্যার প্রতিবাদে এবং জড়িতদের গ্রেপ্তারের দাবিতে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী আজ শুক্রবার বেলা ১২টার দিকে স্থানীয় চরপলিশা তালতলা মোড়ে জামালপুর-দেওয়ানগঞ্জ সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। এ সময় বিক্ষোভকারীরা ছয়-সাতটি গাড়িও ভাঙচুর করে। পরে পুলিশ সেখানে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।  

এ ব্যাপারে মেলান্দহ থানার ওসি মো. আজিজুর রহমান কালের কণ্ঠকে বলেন, মামুন নামের ওই যুবকটি একজন কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী ও মাদকাসক্ত। তাকে আটক করার চেষ্টা চলছে। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। রবিন মাহমুদকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।


মন্তব্য