kalerkantho


সুনামগঞ্জে চুরির অভিযোগে শিকলে বেধে শিশুকে নির্যাতন

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি   

২৪ মে, ২০১৮ ২১:২৯



সুনামগঞ্জে চুরির অভিযোগে শিকলে বেধে শিশুকে নির্যাতন

সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুরে চুরির অভিযোগে এক শিশুকে হাত পা বেঁধে অমানসিক নির্যাতন করেছে এক ব্যবসায়ী। জিঞ্জির দিয়ে বেঁধে পিটিয়ে শিশুটির কাছ থেকে স্বীকারোক্তি আদায় করা হয়েছে। পরে পুলিশ গিয়ে ওই শিশুকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে। উপজেলার মুজিববাজার রাজু মিয়া (১১) নামের ওই শিশুটি সেফহোমে আছে। 

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, মুজিববাজার গ্রামের দিনমজুর আব্দুল মতিনের ছেল রাজু মিয়া বুধবার বিকেলে বাজারে ঘুরাঘুরি করছিল। সন্ধ্যার দিকে উপজেলার ধনপুর বাজারের নূর হোসেনের টেলিকম দোকানে চুরির অভিযোগে বাজারের ব্যবসায়ী দুধপুর গ্রামের নূর আহমদ এবং পশ্চিম রাজনগর গ্রামের ব্যবসায়ী ওয়াহেদ আলী শিশু রাজু মিয়াকে বাজার থেকে ধরে নিয়ে তার হাত পা বেধে বেদম মারপিট করে। এক পর্যায়ে শিকল দিয়ে বেধে পিটিয়ে তার স্বীকারোক্তি আদায় করা হয়। 

এদিকে স্থানীয়রা শিশুকে মারধরের ঘটনাটি থানাকে জানালে খবর পেয়ে বিশ্বম্ভরপুর থানার এসআই আরিফ ঘটনাস্থলে পৌঁছে নির্যাতনকারীদের কাছ থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন। পরে আজ বৃহষ্পতিবার তার মায়ের আবেদনের প্রেক্ষিতে তাকে সেফ হোমে পাঠানো হয়েছে।

এ ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী বাজারের ব্যবসায়ী জয়নাল আবেদীন জানান, শিশুটির কিছু চুরির অভ্যেস আছে। তবে এভাবে তাকে নির্যাতন করা মোটেও ঠিক হয়নি।

বিশ্বম্ভরপুর থানার ওসি মোল্লা মনির হোসেন বলেন, শিশুটির মার আবেদনের প্রেক্ষিতে তাকে আদালকের মাধ্যমে বৃহষ্পতিবার দুপুরে সেফ হোমে পাঠানো হয়েছে। চুরির অভিযোগ পাওয়ায় আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে বুধবার রাতে থানায় নিয়ে এসেছিলাম।



মন্তব্য