kalerkantho


আত্মসমর্পণ করলেন সুন্দরবনের ৫৭ দস্যু

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ মে, ২০১৮ ১৩:১৩



আত্মসমর্পণ করলেন সুন্দরবনের ৫৭ দস্যু

সুন্দরবনের কুখ্যাত বনদস্যু ও ডাকাত বাহিনীর প্রধানসহ ছয়টি বাহিনীর ৫৭ সদস্য র‌্যাবের কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন। আজ বুধবার র‌্যাব-৬ খুলনার সদরদপ্তরে বিপুল অস্ত্র ও গোলা-বারুদ নিয়ে আত্মসমর্পণ করেন রাজন ওরফে দাদা ভাই, আমিরুল, হান্নান, সূর্য্য, ছোট শামসু ও মুন্না বাহিনীর এ সদস্যরা। তারা ৫৮টি অস্ত্র জমা দিয়েছেন এবং গুলি জমা দায়েছেন ১২৮৪ রাউন্ড। র‌্যাব-৬ খুলনার পরিচালক অতিরিক্ত ডিআইজি খোন্দকার রফিকুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

খুলনা র‌্যাব-৬ এর অধিনায়ক খোন্দকার রফিকুল ইসলাম জানান, ছয়টি দস্যুবাহিনীর মধ্যে দাদা ভাই বাহিনীর ১৫ জন সদস্য ১২টি অস্ত্র ও ১৭৮ রাউন্ড গুলিসহ আত্মসমর্পণ করেন। হান্নান বাহিনীর নয়জন সদস্য আটটি অস্ত্র ও ১৩০ রাউন্ড গুলি এবং আমির আলী বাহিনীর সাতজন সদস্য পাঁচটি অস্ত্র ও ৪১ রাউন্ড গুলি জমা দিয়ে আত্মসমর্পণ করেন। এছাড়া সূর্য বাহিনীর ১০ জন সদস্য ১১টি অস্ত্র ও ৩৭০ রাউন্ড গুলি জমা দিয়েছেন। ছোট শাসছু বাহিনীর নয়জন সদস্য ১০টি অস্ত্র ও ৩১০ রাউন্ড গুলি এবং মুন্না বাহিনীর সাতজন সদস্য ১২টি অস্ত্র ও ২৫৫ রাউন্ড গুলি জমা দিয়েছেন। মোট ছয়টি গ্রুপের ৫৭ জন আত্মসমর্পণ করেছেন।

তিনি আরো বলেন, খুলনার তিনটি দস্যু বাহিনীর সদস্যরা স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে বুধবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হাতে অস্ত্র জমা দিয়ে আত্মসমর্পণ করবে। সুন্দরবনকে নিরাপদ করতে সরকারের নির্দেশ পালন করছে র‌্যাব। আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী নারায়ণচন্দ্র চন্দ ও র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজির আহমেদ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সভাপতি টিপু মুনশি, মন্নুজান সুফিয়ান এমপি, মিজানুর রহমান এমপি, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দিনসহ নেভি, কোস্টগার্ড ও স্থানীয় প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে ইতোপূর্বে আত্মসমর্পণকারী বনদস্যুদের ৫৮ জনের প্রত্যেককে পুনর্বাসনের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে ১ লাখ টাকার চেক প্রদান করা হয়।

 


মন্তব্য