kalerkantho


লক্ষ্মীপুরে চাঁদার দাবিতে বাড়ির পথে প্রতিবন্ধকতা, আদালতে মামলা

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি   

১৮ মে, ২০১৮ ০০:০২



লক্ষ্মীপুরে চাঁদার দাবিতে বাড়ির পথে প্রতিবন্ধকতা, আদালতে মামলা

লক্ষ্মীপুরের দাবি করা চাঁদা না দেওয়ায় বাড়ির পথে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি ও হত্যার চেষ্টার অভিযোগে এক প্রভাবশালী ও তার লোকজনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। এতে দুইজনের নাম উল্লেখ ও ৪-৫ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়। গত বৃহস্পতিবার সকালে লক্ষ্মীপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ভুক্তভোগী বাবুল মিয়া বাদী হয়ে এ মামলা করেন। 

আসামিরা হলেন সদর উপজেলার চন্দ্রগঞ্জ ইউনিয়নের বসুদুহিতা গ্রামের মুকবুল আহম্মেদের ছেলে শাহজাহান গাজী ও সিরাজ মিয়ার ছেলে শরীফ। 

মামলা সূত্রে জানায়, চন্দ্রগঞ্জের বসুদুহিতা গ্রামে দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে বাবুল মিয়া ১০ শতাংশ জমি নিয়ে বাড়ি করে বসবাস করে আসছেন। স্থানীয় শাহজাহান তার কাছ থেকে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। টাকা দিতে অপরাগতা প্রকাশ করলে বাড়ি থেকে বের হওয়ার রাস্তায় বাঁশের বেড়া দিয়ে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা হয়। 

সম্প্রতি শাহজাহান ক্ষিপ্ত হয়ে লোকজনকে নিয়ে বাবুলের বাড়িতে হামলা করে। ঘটনার সময় তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা করে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নিয়ে নেয় শাহজাহান। এ ঘটনায় লক্ষ্মীপুর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করা হয়। মামলাটি তদন্ত করে চন্দ্রগঞ্জ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) আদালতে প্রতিবেদন পাঠানোর নির্দেশ দেয়া হয়।

মামলার বাদী বাবুল মিয়া সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে বলেন, শাহজাহান ও তার লোকজন আমার কাছ থেকে ৫ লাখ টাকা চাঁদা চেয়েছে। টাকা না দেওয়ায় আমাকে হত্যার চেষ্টা করেছে। একপর্যায়ে জোরপূর্বক একটি ননজুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে আমার স্বাক্ষর নিয়েছে তারা।

অভিযুক্ত শাহজাহান গাজী বলেন, বাবুল মিয়াকে হত্যার চেষ্টার বিষয়টি সত্য নয়। তিনি আমাদের কাছ থেকে ১০ শতাংশ জমি ক্রয় করেছে। তা বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। এরপরও মামলা-হামলা করে অতিরিক্ত জমি দখলে চেষ্টা করছেন তিনি।

চন্দ্রগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জাফর আহম্মদ বলেন, মামলার কপি থানায় আসলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 



মন্তব্য