kalerkantho


বসুন্ধরা খাতা-কালের কণ্ঠ স্কুল বিতর্কে ঝালকাঠি সরকারি বিদ্যালয় চ্যাম্পিয়ন

ঝালকাঠি প্রতিনিধি    

১৬ মে, ২০১৮ ১৬:৫১



বসুন্ধরা খাতা-কালের কণ্ঠ স্কুল বিতর্কে ঝালকাঠি সরকারি বিদ্যালয় চ্যাম্পিয়ন

ঝালকাঠিতে বসুন্ধরা খাতা-কালের কণ্ঠ জাতীয় স্কুল বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ঝালকাঠি সরকারি হরচন্দ্র বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়। প্রতিযোগিতার মাধ্যমে বিজয়ী দল বিভাগীয় পর্বে উন্নীত হয়েছে।

আজ বুধবার কালের কণ্ঠ শুভসংঘ ঝালকাঠি হরচন্দ্র বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় মিলনায়তনে এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। বিতর্ক প্রতিযোগিতার পৃষ্ঠপোষকতা করছে বসুন্ধরা খাতা। 

বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন ঝালকাঠি সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ মো. জাহাঙ্গীর খান। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন সচেতন নাগরিক কমিটির সহসভাপতি হেমায়েত উদ্দিন হিমু, ঝালকাঠি হরচন্দ্র বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক তৌহিদ হোসেন খান, ঝালকাঠি প্রেস ক্লাবের সভাপতি কাজী খলিলুর রহমান, সহসভাপতি অ্যাডভোকেট আক্কাস সিকদার, ঝালকাঠি সরকারি কলেজের শিক্ষক মো. মাসুম বিল্লাহ, সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষক ড. ইমদাদুল হক মামুন, ঝালকাঠি হরচন্দ্র বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক নার্গিস আক্তার ও প্রতীক নাট্যগোষ্ঠীর সাধারণ সম্পাদক শফিউল ইসলাম সৈকত। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন কালের কণ্ঠের জেলা প্রতিনিধি কে এম সবুজ ও শুভসংঘের সাধারণ সম্পাদক তাসিন অনিক মৃধা। 

এই প্রতিযোগিতায় অংশ নেয় জেলা সদরের চারটি স্কুল। প্রথম সেমিফাইনালে ঝালকাঠি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়কে হারিয়ে ফাইনালে উঠে ঝালকাঠি হরচন্দ্র বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়। দ্বিতীয় সেমিফাইনালে পৌর আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়কে হারিয়ে ফাইনালে ওঠে উদ্বোধন মাধ্যমিক বিদ্যালয়। আর ফাইনালে উদ্বোধন মাধ্যমিক বিদ্যালয়কে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় ঝালকাঠি সরকারি হরচন্দ্র বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়। পরে অংশগ্রহণকারী দলের মাঝে সনদপত্র ও ক্রেস্ট বিতরণ করেন অতিথিরা। এ সময় বিভিন্ন বিদ্যালয়ের শতাধিক শিক্ষার্থী বিতর্ক প্রতিযোগিতা উপভোগ করে। 

এদিকে কালের কণ্ঠের শুভসংঘের এই আয়োজনকে স্বাগত জানিয়ে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ঝালকাঠি সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ মো. জাহাঙ্গীর খান বলেন, স্কুল পর্যায়ে বিতর্ক প্রতিযোগিতার আয়োজন করায় কালের কণ্ঠ পরিবারকে ধন্যবাদ। এ ধরনের আয়োজন শিক্ষার্থীদের মনন ও বিকাশে সহযোগিতা করে। তর্কের মাধ্যমে একটি বিষয়কে ফুটিয়ে তোলার মাঝে আনন্দ রয়েছে।



মন্তব্য