kalerkantho


ধর্ষণ চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে গৃহবধূকে কুপিয়ে জখম!

ভোলা প্রতিনিধি   

২০ মার্চ, ২০১৮ ২১:২০



ধর্ষণ চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে গৃহবধূকে কুপিয়ে জখম!

বছর খানেক আগে ধর্ষণ চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে বিবি হাজেরা (৩০) নামে এক গৃহবধূকে রাতের আধারে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। গত শুক্রবার রাতে ভোলা সদর উপজেলার ইলিশা ইউনিয়নের ০৯ নম্বর ওয়ার্ডে ভিকটিমের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় তরিকুল (৩৫) নামে একজনের যোগসূত্র থাকতে পারে বলে জানা গেছে। তবে এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি।
 
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিবি হাজেরা জানান, শুক্রবার রাতে বাসার বাহিরে অজু করার জন্য বের হলে রাতের আধারে পাচ-ছয়জন লোক আমাকে পিছন থেকে দু-হাত ও মুখে বেধে ফেলে এবং এলোপাতাড়ি কোপায়। মাথায়, গালে, হাতে ও বাম কানের অনেক যায়গা মারাত্বকভাবে জখম হয়। ফলে আমি অজ্ঞান হয়ে পরি। এমন সময় আমার মেয়ে ধরতে আসলে তাকেও কিল-ঘুশি  দিতে থাকে। পরে মেয়ের চিৎকারে আশেপাশের অন্য বাড়ির লোকজনসহ মহিলারা ছুটে এসে আমাকে উদ্ধার করে মেডিক্যালে নিয়ে আসে। সন্ত্রাসীরা সকলেই মুখে গামছা বাধা ছিলো বলে আমি তাদেরকে চিনতে পারিনি। আমার পুরানো প্রতিশোধ নেয়ার জন্য আমাকে হত্যার চেষ্টা করা হয়।
 
তিনি বলেন, আমার নিকট আত্মীয়রা এসব কাজ করেছে। বছর খানেক আগে তরিকুল আমায় কু-প্রস্তাব দেয়। তখনই আমি রাজি না থাকায় একদিন রাতে আমায় মুখ চেপে ধরে। আমি চিৎকার করে লাফিয়ে উঠে পাশে থাকা বটি দিয়ে কোপ দেই। আমার শ্বাশুড়ি বাসায় ছিলো, পরে তার বিচার করেছে স্থানীয় মেম্বার ও এলাকার লোকজন। সেইদিনও বলেছে আমায় দেখিয়ে দিবে বলে হুমকি দেয়। 
 
হাজেরার স্বামী জানান, আমি ঢাকাতে মুদির ব্যাবসা করার কারণে ভোলাতে সব সময় থাকতে পারি না । ছেলে-মেয়েদেরকে নিয়ে স্ত্রী একা বাড়িতে থাকতে হয়।
 
এ ব্যাপারে ইলিশা ইউনিয়নের ৯ নম্বার ওয়ার্ডের মেম্বার শাহে আলম সিকদার জানান, বছর খানেক আগে আমি ও এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিসহ রাতে ঘরে ঢুকে মুখ চেপে ধরার ঘটনার জন্য বিচার করে দেওয়া হয়। তার পর আবার এ ঘটনা। আমি দেখেছি। নতুন করে এ ঘটনার জন্য আমিও এর সঠিক বিচার চাই। তবে এ বিষয়ে তরিকুলের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

মন্তব্য