kalerkantho


চোরের রেখে যাওয়া মোবাইলই চিনিয়ে দিল চোরকে

চুরি হওয়া মালামাল উদ্ধার

ঝালকাঠি প্রতিনিধি    

১৭ মার্চ, ২০১৮ ২২:২৬



চোরের রেখে যাওয়া মোবাইলই চিনিয়ে দিল চোরকে

সকালে ঘুম থেকে উঠে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার না পেয়ে হতাশ ঘরের লোকজন। ঘরের মাঝামাঝি সিঁক কাটা দেখে তারা বুঝতে পারল চুরি হয়েছে। অনেক খোঁজাখুজির পরে চুরি হওয়া মালামাল পাওয়া যায়নি। তবে পাওয়া গেছে চোরের রেখে যাওয়া মোবাইল ফোনটি। অবশেষে ওই মোবাইলের মাধ্যমেই চোরের পরিচয় পেয়ে তাকে ধরে ফেলে পুলিশ। উদ্ধার করা হয় চুরি হওয়া মালামালও। এ ঘটনাটি ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার পূর্ব দপদপিয়া গ্রামে। 

পুলিশ জানায়, নলছিটি উপজেলার দপদপিয়া ইউনিয়নের পূর্ব দপদপিয়া গ্রামের সুমি বেগমের ঘরে গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাতে সিঁক কেটে চোর ঢুকে। চোর ওই ঘর থেকে নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার ও কয়েকটি মোবাইল ফোন নিয়ে যায়। তবে ভুল করে সে নিজের মোবাইলটিই ঘরের ভেতরে রেখে যায়। আজ শনিবার সকালে ঘুম থেকে ওঠে সুমি বেগম দেখতে পান তাঁর গলার চেইনটি নেই। পরে দেখতে পান ঘরে থাকা নগদ টাকা ও অন্য স্বর্ণালংকারও নেই। অনেক খোঁজাখুজির পরে পাওয়া যায় অন্য একটি মোবাইল ফোন। সন্দেহ হয়, এটিই চোরের রেখে যাওয়া মোবাইল। তিনি খবর দেন পুলিশে। খবর পেয়ে নলছিটি থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. মহিউদ্দিন শেখ ঘটনাস্থলে গিয়ে মোবাইল ফোনটি নিয়ে তদন্ত শুরু করেন। খুঁজে পেলেন সুমি বেগমের গ্রামেরই একটি ছেলের মোবাইল এটি। তাঁর নাম রাসেল সিকদার (২৮)। পরে তাকে আটকের পর বেড়িয়ে আসে চুরির সব তথ্য। 

এসআই মো. মহিউদ্দিন শেখ বলেন, চোরকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। তাঁর কাছ থেকে চুরি হওয়া মালামালও উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় সুমি বেগম বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন। 


মন্তব্য