kalerkantho


শরীয়তপুরে ইটভাটার শ্রমিককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

শরীয়তপুর প্রতিনিধি    

১৩ মার্চ, ২০১৮ ১৮:০২



শরীয়তপুরে ইটভাটার শ্রমিককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

শরীয়তপুর সদর উপজেলার তালুকদার ব্রিকফিল্ড নামে একটি ইটভাটায় আলমগীর হোসেন মিয়া (৩৫)নামের এক শ্রমিককে পিটিয়ে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে। একটি মোবাইল ফোন হারানো নিয়ে গতকাল সোমবার দুপুরে কয়েকজন শ্রমিক আলমগীর হোসেনকে পিটিয়ে আহত করে। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। এ ঘটনায় ওই ইটভাটায় কর্মরত চার শ্রমিককে আটক করেছে পুলিশ। 

নিহত আলমগীর কিশোরগঞ্জের ইটনা উপজেলার এলানজুরি গ্রামের জামির হোসেন মিয়ার ছেলে। জানা গেছে, তার মা আনোয়ারা বেগম বাদী হয়ে আটক আট ব্যক্তিকে আসামি করে শরীয়তপুর সদরের পালং মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

পালং মডেল থানা সূত্র জানায়, শরীয়তপুর সদরের খিলগাঁও গ্রামে তালুকদার ব্রিকফিল্ড অবস্থিত। ওই ইটভাটায় কিশোরগঞ্জের ইটনা, করিমগঞ্জ ও সদর উপজেলার শ্রমিকরা কাজ করেন। আলমগীর হোসেন তার পরিবারের সদস্য ও আত্মীয়-স্বজন মিলে ১৫ জনের একটি দল নিয়ে গত নভেম্বরে ওই ইটভাটায় কাজে আসেন। গতকাল সোমবার সকালে আলমগীরের একটি মুঠোফোন হারিয়ে যায়। ওই ঘটনা নিয়ে শ্রমিক জাকির হোসেন ভূইয়া, ওবায়দুল খান, আল আমীন ভূইয়া ও বাবুল হোসেন ভূইয়ার সাথে কথা কাটাকাটি হয়। তখন ওই ব্যক্তিরা আলমগীর ও তার ছোট ভাই বাবু হোসেন মিয়াকে পিটিয়ে আহত করে। স্বজনরা তাদের উদ্ধার করে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। গতকাল রাত ১১টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আলমগীর হোসেন মারা যায়। আজ মঙ্গলবার সকালে শরীয়তপুর সদর হাসপাতাল মর্গে ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের সদস্যরা তার লাশ নিয়ে কিশোরগঞ্জে রওনা দেন।
 
পালং মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হুমায়ুন কবীর বলেন, শ্রমিককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের আদালতে সোপর্দ করা হবে। বাকি চার আসামি পালিয়ে গেছে। তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। 



মন্তব্য