kalerkantho


তৃতীয় শ্রেণির স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ, অভিযুক্ত কলেজ ছাত্র পলাতক

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি   

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ২৩:১০



তৃতীয় শ্রেণির স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ, অভিযুক্ত কলেজ ছাত্র পলাতক

প্রতীকী ছবি

সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী দিনমজুর কন্যাকে ধর্ষণ করেছে একই এলাকার এক কলেজ ছাত্র। আজ শুক্রবার বিকেলে এই ঘটনা ঘটেছে। ধর্ষিতা স্কুলছাত্রীকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় সুনামগঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করার পর তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ ধর্ষকের পিতাকে আটক করেছে।

পুলিশ জানায়, তাহিরপুর জয়নাল আবেদীন কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র রিমন মিয়া উজান তাহিরপুরের গ্রামের তৃতীয় শ্রেণির জনৈক ছাত্রীকে বসতঘরে একা পেয়ে ধর্ষণ করে। এ সময় ওই ছাত্রীর পরিবারের লোকজন বাড়িতে ছিলেন না। এই সুযোগে ঘরে ডুকে তার মুখে কাপড় গুজে ছাত্রীকে ধর্ষণ করে রিমন। পরিবারের লোকজন ঘরে এসে মেয়েটিকে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যান। তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তাররা প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন। সন্ধ্যায় সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে আসার পর সেখানকার কর্তব্যরত ডাক্তার আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে।

এদিকে এ ঘটনার পরই রিমন মিয়া পালিয়ে যায়। সন্ধ্যায় রিমনের পিতা আব্দুল আজিজকে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত ডাক্তার বেঞ্জামিন গোমেজ বলেন, নির্যাতিতা মেয়েটির অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে তাকে একটি স্যালাইন দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

এ ঘটনায় তাহিরপুর থানার ওসি নন্দন কান্তি ধর জানান, ধর্ষকের পিতাকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।



মন্তব্য