kalerkantho


ডাকাতি প্রতিরোধ করতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ

মেহেরপুর প্রতিনিধি    

২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১১:৫২



ডাকাতি প্রতিরোধ করতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ

মেহেরপুর শহরের পশুহাট পাড়ায় ডাকাতের গুলিতে সজল হোসেন (৩০) নামের এক রং শ্রমিক আহত হয়েছেন। বর্তমানে তিনি কুষ্টিয়া মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন।

এর কয়েক ঘণ্টা আগে একই পাড়ার রতন নামের এক সুইপারের বাড়িতে হামলা চালিয়ে টাকা ও ৪০ হাজার টাকার স্বর্ণালংকার লুট করে ডাকাতদল। মঙ্গলবার রাত ৯টা থেকে ৩টার মধ্যে এ পৃথক ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

আহত রং শ্রমিক সজলের বড় ভাই মো. রাজন জানান, মঙ্গলবার রাত ৩টার দিকে ৫-৬ জনের একদল ডাকাত তার ভাই সজলের বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় বাড়ির দরজা না খুললে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেয় ডাকাতদল। পরে দরজা খোলা হলে তারা বাড়ির মধ্যে প্রবেশ করে। এ সময় সজল তার প্রতিবেশী আব্বাস আলীকে ডাক দিলে ডাকাতদের একজন ক্ষিপ্ত হয়ে সজলের পেটে গুলি চালায়। পরে এলাকাবাসীর চিৎকার শুনে ডাকাতদল পালিয়ে যায়।

স্থানীয়রা সজলকে উদ্ধার করে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে কুষ্টিয়া মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন।

এর আগে রাত ৯টার দিকে একই এলাকার সুইপার কলোনিতে রতনের বাড়িতে হামলা চালিয়ে নগদ ১৬ হাজার ও ৪০ হাজার টাকার স্বর্ণালংকার লুট করে ডাকাতদল। আগের দিন একই কলোনির কালু সুইপারের বাড়িতেও ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এ নিয়ে এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে।

মেহেরপুর সদর থানার ওসি রবিউল ইসলাম একই রাতে দুই স্থানে ডাকাতির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ডাকাতের গুলিতে একজন আহত হয়েছেন বলে জানান তিনি।


মন্তব্য