kalerkantho


দেশে প্রথমবার অনুষ্ঠিত হলো কৈশোরকালীন স্বাস্থ্যশিক্ষা উপকরণ মেলা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০১:০৪



দেশে প্রথমবার অনুষ্ঠিত হলো কৈশোরকালীন স্বাস্থ্যশিক্ষা উপকরণ মেলা

কিশোর-কিশোরীদের মধ্যে স্বাস্থ্য সচেতনতা তৈরি লক্ষ্যে দেশে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হয়েছে তথ্য-উপকরণ মেলা। গতকাল রবিবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আর্ন্তজাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এ মেলার যৌথ আয়োজক ছিল সরকারের পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের এমসিএইচ সার্ভিসেস ইউনিট, ইউনিসেফ ও নেদারল্যান্ডস দূতাবাস। দিনব্যাপী এ মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, কৈশোরকালীন স্বাস্থ্যশিক্ষা উপকরণগুলোর মাধ্যমে কিশোর-কিশোরীরা তাদের অনেক প্রয়োজনীয় তথ্য পাবে এবং উপকৃত হবে। স্বাস্থ্য সম্পর্কিত সঠিক তথ্যগুলো পেলে তারা অসুস্থতা ও বিভিন্ন ঝুঁকিপূর্ণ আচরণ থেকে নিজেকে নিরাপদ রাখতে পারবে।

পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. কাজী মোস্তফা সারোয়ারের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব কাজী আ খ ম মহিউল ইসলাম, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এনায়েত হোসেন, পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের পরিচালক (এমসিএইচ সার্ভিসেস) ডা. মোহাম্মদ শরীফসহ নেদারল্যান্ডস দূতাবাস ও ইউনিসেফ প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, বাংলাদেশ সরকার নারী শিক্ষা, বাল্য বিবাহ, কৈশোরকালীন গর্ভধারণ ইত্যাদি সমস্যাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে গ্রহণ করেছে। আজকের কিশোর-কিশোরীরা আগামীদিনের নাগরিক। তাদের সুস্থভাবে বেড়ে উঠতে হলে ও জীবনে সাফল্য পেতে হলে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার পাশাপাশি সচেতনতা ও স্বাস্থ্যের যত্ন নিতে হবে।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকার স্বাস্থ্যসেবাকে মানুষের দোড়গোড়ায় নিয়ে গেছে। কমিউনিটি ক্লিনিক এখন বিশ্ববাসীর কাছে রোল মডেল, এ ছাড়া এ সরকারের সময় দেশের চিকিৎসা ও ওষুধ খাতেও অভূতপূর্ব উন্নতি সাধন হয়েছে। পাশাপাশি এ সরকার নারী ও শিশুদের স্বাস্থ্য, শিক্ষা, নিরাপত্তা সব সময়ই প্রাধান্য দিয়ে এসেছে। বেতনসহ মাতৃত্বকালীন ছুটি ৪ মাস থেকে ৬ মাসে উন্নীতকরণ, শিশু ও নারী নির্যাতন দমন আইন, নারীনীতি প্রণয়ন, ৩ হাজার মিডওয়াইফ তৈরির প্রক্রিয়া ও কমিউনিটি ক্লিনিকগুলি কার্যকরী করার মাধ্যমে নারী ও শিশুদের স্বাস্থ্যসেবার প্রতি অধিকতর গুরুত্ব দিচ্ছে।


মন্তব্য