kalerkantho


গফরগাঁওয়ে আসামি ধরতে গিয়ে এসআই আহত, গ্রেপ্তার ২

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি    

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৯:০২



গফরগাঁওয়ে আসামি ধরতে গিয়ে এসআই আহত, গ্রেপ্তার ২

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে মামলার এজাহার নামীয় আসামি ধরতে গিয়ে এসআই আহসান হাবিব আহত হয়েছেন। পুলিশের অভিযোগ রাতের বেলা আসামির বাড়িতে দরজা খোলতে বললে ডাকাত ডাকাত চিৎকার দিয়ে ঘরের ভিতর থেকে পুলিশকে লক্ষ করে আঘাত করলে এসআই আহসান হাবিব ডান হাতে আঘাতপ্রাপ্ত হন। তবে আসামি পক্ষের দাবী, দরজা খোলতে সামান্য বিলম্ব হওয়ায় এসআই আহসান হাবিব জানালা ভেঙে বসত ঘরে প্রবেশের চেষ্টা করলে ডান হাতে আঘাতপ্রাপ্ত হন।  

ঘটনাটি ঘটে গত শুক্রবার দিবাগত রাত আড়াইটার সময় উপজেলার বাড়া গ্রামে। পরে পুলিশ এজাহার নামীয় দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসেন। আজ শনিবার সকালে গ্রেপ্তারকৃত আসামিদের আদালতের মাধ্যমে ময়মনসিংহ জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

থানা ও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, গত বুধবার উপজেলার বাড়া গ্রামের জালাল উদ্দিনের খড়ের গাঁদা থেকে প্রতিবেশী রুকুন উদ্দিনের গরু খড় খেয়ে ফেলে। এ নিয়ে দুই প্রতিবেশীর মধ্যে ঝগড়া ও মারামারি হয়। এতে দুই পক্ষের ৪-৫ জন আহত হয়। পরে আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা করানো হয়। 

এ ঘটনায় গত শুক্রবার রুকুন উদ্দিন বাদী হয়ে প্রতিবেশী জালাল উদ্দিনসহ চার জনকে আসামি করে গফরগাঁও থানায় মামলা দায়ের করেন। গত শুক্রবার দিবাগত রাত আড়াইটার সময় গফরগাঁও থানার এসআই হেলাল উদ্দিন ও এসআই আহসান হাবিব সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে বিবাদী জালাল উদ্দিনের বাড়িতে আসামি ধরতে গেলে এই ঘটনা ঘটে। 

এ সময় পুলিশ এজাহার নামীয় আসামি আমিন (২৫) ও মোহাম্মদকে (২৩) গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসেন। পরে এস আই আহসান হাবিবকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

জালাল উদ্দিনের ছেলে হাফেজ ফয়জুর রহমান অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, গভীর রাতে ডাকাডাকি শুনে ভয়ে দরজা খোলতে বিলম্ব হলে সাবল দিয়ে জানালা ভাঙার সময় এসআই আহসান হাবিব হাতে আঘাত পান। 

এসআই হেলাল উদ্দিন বলেন, জালাল উদ্দিনের বাড়িতে শুক্রবার গভীর রাতে এজাহার নামীয় আসামিদের ধরতে গেলে আসামিরা অন্ধকারে ঘরের ভিতর থেকে ডাকাত ডাকাত চিৎকার দিয়ে জানালা খোলে রড দিয়ে আঘাত করে। এতে জানালার সামনে থাকা এসআই আহসান হাবিবের ডান হাতে জখম হয়। পরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসআই আহসান হাবিবের হাতে সেলাই ও ব্যান্ডেজ করা হয়।

এসআই আহসান হাবিব বলেন, আমরা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আসামির অবস্থান নিশ্চিত হয়ে বিবাদী জালাল উদ্দিনের বাড়িতে যাই। কিন্তু দীর্ঘ সময় দরজা ও জানালায় ডাকাডাকি করলেও না খোলে আসামিরা ঘরের ভিতর থেকে ডাকাত ডাকাত চিৎকার দিয়ে অন্ধকারে জানালার ফাঁক দিয়ে আমাকে আঘাত করে। এতে আমার ডান হাতের কব্জিতে জখম হয়। 


মন্তব্য