kalerkantho


ফরিদপুরে আওয়ামী লীগের দু'পক্ষের সংঘর্ষে আহত ২৫

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফরিদপুর    

১৮ জানুয়ারি, ২০১৮ ২২:০৪



ফরিদপুরে আওয়ামী লীগের দু'পক্ষের সংঘর্ষে আহত ২৫

এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ফরিদপুরের সালথা উপজেলার গট্টি ইউনিয়নের জয়ঝাপ গ্রামে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে ২৫ জন আহত হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার সকালে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু জাফর মোল্লার সমর্থকদের সাথে স্থানীয় প্রভাবশালী আওয়ামী লীগ নেতা মানিক মাতুব্বরের সমর্থকদের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে সালথা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে শটগানের ফাঁকা গুলি ছুঁড়ে উভয় পক্ষের সমর্থকদের ছত্রভঙ্গ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি আবু জাফর মোল্লার সাথে এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে স্থানীয় প্রভাবশালী আওয়ামী লীগ নেতা মানিক মাতুব্বরের বিরোধ চলছিল। এর জেরে আজ সকাল সাড়ে ১০টার দিকে জাফরের সমর্থকরা মানিক মাতুব্বরের সমর্থক সিরাজ মোল্লার বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে। পরে উভয় পক্ষের সমর্থকরা ঢাল, কাতরা ও সড়কিসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মুখোমুখি অবস্থান নেয়। 

এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে ইটপাটকেল বিনিময় হয়। সংঘর্ষে কমপক্ষে ২৫ জন আহত হয়েছে। এর মধ্যে ছয়জনকে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকীদের পাশের নগরকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ফাঁকা গুলি ছুঁড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

আওয়ামী লীগ নেতা আবু জাফর তার সমর্থকদের হামলার কথা অস্বীকার করে জানান, বিষয়টি খোঁজ নিয়ে বলতে পারব। এ ব্যাপারে মানিক মাতুব্বর বলেন, জাফরের লোকজন আমার সমর্থক সিরাজের বাড়ি হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করেছে।

সালথা থানার ওসি দেলোয়ার হোসেন খান জানান, সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে শটগানের ৮/১০ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুঁড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ওই গ্রামে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। এ ঘটনায় কেউ আটক হয় নি। কোনো পক্ষ থানায় অভিযোগ করে নি বলে জানিয়েছেন তিনি।



মন্তব্য