kalerkantho


না.গঞ্জে হকারদের প্রতীকী অনশন আলোচনাসভা

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি   

১২ জানুয়ারি, ২০১৮ ০৩:৩৪



না.গঞ্জে হকারদের প্রতীকী অনশন আলোচনাসভা

পুনর্বাসনসহ ছুটির দিনে ও অন্যান্য দিন বিকেল ৫টার পর ফুটপাতে বসতে দেওয়ার দাবিতে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত চাষাঢ়া শহীদ মিনারে অনশন করেছে হকাররা। নারায়ণগঞ্জ জেলা হকার সংগ্রাম পরিষদের উদ্যোগে প্রতীকী অনশন ও আলোচনাসভায় সভাপতিত্ব করেন হকার সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ক আসাদুল ইসলাম আসাদ।

এ সময় সংহতি জানিয়ে বক্তব্য দেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির উপদষ্টো মনজুরুল আহসান খান, জাতীয় শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি শুক্কুর মাহমুদ, বাংলাদেশ হকার্স ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সভাপতি আবুল হাসেম কবীর, উপদষ্টো হযরত আলী ও মঞ্জুর মইন। বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের জেলা সভাপতি হাফিজুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক বিমল কানি্ত দাস, সহসভাপতি আব্দুল হাই শরীফ, জেলা জাতীয় শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মাঈনুদ্দিন, গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের নেতা দুলাল সাহা, জেলা সভাপতি এম এ শাহীন, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন, সমাজতানি্ত্রক শ্রমিক ফ্রন্টের জেলা সভাপতি আবু নাঈম খান বিপ্লব, সাধারণ সম্পাদক সেলিম মাহমুদ, গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্টের জেলা সেক্রেটারি জাহাঙ্গীর আলম গোলক, মহানগর হকার্স লীগের সভাপতি রহিম মুন্সী, সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন পলাশ, নাসির উদ্দিন, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের জেলা সেক্রেটারি সুমাইয়া সেতু, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের জেলা সভাপতি সুলতানা আক্তার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় বক্তারা বলেন, হকারদের ব্যবসা করার সুযোগ না দিলে তাদের খেয়ে-পরে বেঁচে থাকার ব্যবস্থা করতে হবে। দমন-পীড়ন করে নারায়ণগঞ্জ থেকে হকারদের তাড়িয়ে দেওয়া সম্ভব হবে না। হকাররা তা হতে দেবে না। এ ক্ষেত্রে তাদের বেঁচে থাকার যৌক্তিক সমাধান দিতে হবে। অন্যথায় যেকোনো পরিস্থিতির জন্য জেলা প্রশাসক ও সিটি মেয়র দায়ী থাকবেন।

পরে বিকেলে মনজুরুল আহসান খান অনশনরত হকার নেতাদের পানি পান করিয়ে অনশন ভাঙান। এ সময় হকার নেতারা বলেন, শুক্র ও শনিবার ফুটপাতে বসে তাঁরা ব্যবসা করবেন। এ ক্ষেত্রে কোনো পুলিশি নির্যাতন হলে রবিবার থেকে কঠিন আন্দোলন শুরু হবে।



মন্তব্য