kalerkantho


হাতিয়ার মেঘনা নদী থেকে ৪ জেলে অপহরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক, নোয়াখালী   

৩ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০৭



হাতিয়ার মেঘনা নদী থেকে ৪ জেলে অপহরণ

নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার মেঘনা নদীর পশ্চিম পাশের মৌলভীর চর খাল থেকে ৪ জেলেকে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবি করছে জলদস্যুরা। দস্যুরা তাদেরকে মুক্ত করতে ২ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেছে খবর পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে হাতিয়া মৎস্য ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. ইসমাঈল অপহরণ করার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, সোমবার রাতে মেঘনা নদীর মৌলভীর চর খাল এলাকা থেকে ওই ৪ জেলেকে অপহরণ করা হয়। অপহৃত জেলেরা হলেন, মো. কামাল মাঝি (৫২), জামাল মাঝি (৫০), মো. জুয়েল (৩২) ও হাসান উদ্দিন (৩৫)। তারা প্রত্যেকে ভোলা জেলার দেৌলতখান উপজেলার মুন্সীর হাট এলাকার বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

হাতিয়া মৎস্য ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. ইসমাঈল জানান, ওই ৪ জেলে হাতিয়ার চেয়ারম্যান ঘাট এলাকায় অবস্থান করে নদীতে মাছ শিকার করে। পরে বয়ার চর বাজারের মাছ ব্যবসায়ী ইউসুফ, মিজান ও বাবরের কাছে মাছ বিক্রি করে। সোমবার রাতে ছোট নৌকা নিয়ে মেঘনা নদীতে মাছ শিকারে যাচ্ছিলো ওই ৪ জেলে। পথে মধ্যে মেঘনা নদীর পশ্চিম পাশের মৌলভীর চর খালে পৌঁছানো মাত্র তাদেরকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে অপহরণ করে নিয়ে যায় জলদস্যুরা।

পরে মঙ্গলবার বিকালে জেলেদের ব্যবহৃত মোবাইল ফোনের মাধ্যমে মাছ ব্যবসায়ী ইউসুফ, মিজান ও বাবরের কাছে ফোন করে জেলেদের মুক্তি দিতে দুই লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে জলদস্যুরা। মুক্তিপণ না দিলে ওই জেলেদের প্রাণে হত্যা করার হুমকিও দেয়া হয় বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে হাতিয়ায় অবস্থানরত কোস্টগার্ডের স্টেশন কমান্ডার লে. ফারুকুল ইসলাম জানান, তারা এ অপহরণের বিষয়ে অবহিত নন। কেউ তাদেরকে অবহিত করেনি, তবে তিনি খোঁজ-খবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন বলে জানান।

হাতিয়া থানার ওসি কামরুজ্জামান শিকদার জানান, হাতিয়া মৎস্য ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির নেতারা মঙ্গলবার রাতে ৪ জেলে অপহরণের বিষয়টি তাকে অবহিত করেছে। তিনি এ বিষয়ে খোঁজ-খবর নিয়ে অপহৃত জেলেদের উদ্ধারের চেষ্টা করবেন বলে জানান।



মন্তব্য