kalerkantho


মেম্বার অ্যাসোসিয়েশনের বিক্ষোভ-সমাবেশ

মঠবাড়িয়ায় ইউপি সদস্যকে হত্যা চেষ্টার প্রতিবাদ

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, পিরোজপুর    

৭ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১৩:৫৯



মঠবাড়িয়ায় ইউপি সদস্যকে হত্যা চেষ্টার প্রতিবাদ

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় ইসমাইল খান নামের এক ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে আহত করার প্রতিবাদে উপজেলা মেম্বর অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে শহরের কে এম লতিফ সুপার মার্কেটে অবস্থিত সংগঠনের নিজস্ব কার্যালয় থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

এতে উপজেলার ১১ ইউপি চেয়ারম্যান, ইউপি সদস্যসহ এলাকাবাসী অংশ নেন।

পরে শহীদ মিনার চত্বরে উপজেলা মেম্বর অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মো. জাহাঙ্গীর হোসেন খানের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য দেন আ‌ওয়ামী লীগ নেতা ফজলুল হক মণি, যুবলীগ নেতা সাকিল আহম্মেদ নওরোজ, সদর ইউপি চেয়ারম্যান এবিএম ফারুক হাসান, টিকিকাটা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রিপন, গুলিসাখালী ইউনিয়ন পরিষদের  চেয়ারম্যান রিয়াজুল আলম, ইউপি সদস্য রুবিনা সুলতানা, মো. গোলাম মোস্তাফা, মনির হোসেন রাজা, আহত ইউপি সদস্য ইসমাইল খানের স্ত্রী রোজিনা বেগম প্রমুখ।

বক্তারা ইউপি সদস্য মো. ইসমাইল খান স্থানীয় সন্ত্রাসীদের আধিপত্য বিস্তার ও মাদক বিক্রিতে বাধা দেওয়ায় তাকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা চালানোর তীব্র প্রতিবাদ ও জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে পিরোজপুর জেলা প্রশাসক বরাবর  স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার রাতে  স্থানীয় বাইশকুড়া বাজারে টিকিকাটা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ইসমাইল খান (৩২) ও দুবাই প্রবাসী মহিবুল্লাহ আকনকে (৩০) এলাকার কুপিয়ে আহত করা হয়। বর্তমানে তিনি ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

এ ঘটনায় আহত ইউপি সদস্য ইসমাইলের স্ত্রী রোজিনা বেগম বাদী হয়ে ১১ জন এজাহারনামীয় ও ৫-৭ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে মঠবাড়িয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ হামলায় জড়িত চারজনকে খুলনার সোনাডাঙা এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন ভেচকী গ্রামের সোহরাব মাতুব্বরের ছেলে শামিম মাতুব্বর (২৮), একই এলাকার নুরু মাতুব্বরের পুত্র নান্টু মাতুব্বর (৩৭), জামাল হোসেনের পুত্র অলি মাতুব্বর (২৫) এবং  উত্তর ভেচকী গ্রামের আবদুল মান্নানের পুত্র আলামিন (২০)।

পরে তাদেরকে জেল হাজতে পাঠানো হয়। অপর অভিযুক্তরা পলাতক।  


মন্তব্য