kalerkantho


পাথরঘাটায় তরুণী র্ধর্ষণ ও হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

পাথরঘাটা (বরগুনা) প্রতিনিধি   

২৩ নভেম্বর, ২০১৭ ১৮:৩৮



পাথরঘাটায় তরুণী র্ধর্ষণ ও হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

ছবি : কালের কণ্ঠ

বরগুনার পাথরঘাটায় তরুণী ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় জড়িতদের উপযুক্ত বিচারের দাবিতে পাথরঘাটায় এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। হত্যা ঘটনায় জড়িত গ্রেপ্তারকৃত ছাত্রলীগের কলেজ শাখার সাবেক সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে তৃতীয় দফায় আবার ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।

পাথরঘাটা শহরের রাসেল স্কয়ারে আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় সচেতন নাগরিক সমাজ নামের ব্যানারে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানবন্ধনে স্থানীয় গণ্যমান্য, শিক্ষক, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রী, জনপ্রতিনিধি, ব্যবসায়ীগণ উপস্থিত ছিলেন।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন পাথরঘাটা পৌরসভার সাবেক কাউন্সিলর ও পাথরঘাটা পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মোশারফ হোসেন সোহরাফ, পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. রোকনুজ্জামান রুকু, পাথরঘাটা আদর্শ বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারি প্রধান শিক্ষক কানিজ ফাতিমা বীনা, পাথরঘাটা কে এম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক জাকির হোসেন খান, স্বেচ্ছায় রক্তদান সংগঠন প্রত্যয় এর প্রধান মেহেদী হাসান ও ছাত্র নেতা রফিকুল ইসলাম কাকন প্রমুখ।

বক্তারা গত ৫ বছরে শহরে ১১টি  অজ্ঞাত লাশ পড়ার সাথে জড়িত সহ কলেজ প্রাঙ্গনে পুকুর থেকে উদ্ধার তরুণীর হত্যা ও ধর্ষণের সাথে জড়িতদের শাস্তি দাবি করেন। তারা বলেন, গ্রেপ্তার ছাত্রদের বহিস্কার করা হয়েছে কিন্তু তাদের উপযুক্ত বিচার ছাড়া আমরা মাঠ থেকে যাব না। সঠিক তদন্ত করে জড়িত সকলকে শাস্তির আওতায় আনতে হবে।

এদিকে বৃহস্পতিবার বেলা ১২টায় তরুণী ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় জড়িত সন্দেহে গ্রেপ্তারকৃত পাথরঘাটা কলেজ শাখা ছাত্রলীগের বহিস্কৃত সভাপতি রুহি আনান ডেনিয়েল ও সাধারণ সম্পাদক মো. সাদ্দাম হোসেন ছোট্টকে পুলিশ পাথরঘাটা উপজেলা বিচারিক আদালতে হাজির করে। পুলিশ ৭ দিনের রিমান্ড দাবি করলে তৃতীয় দফায় আদালতের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো.মঞ্জুরুল ইসলাম তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, অজ্ঞাত পরিচয় তরুণীর নাম পরিচয় উদ্ধার করাটাই এখন প্রধান কাজ।

ধর্ষণ, হত্যা ও পুকুরের পানিতে লুকিয়ে রাখার সত্যতা এবং জড়িতদের তথ্য পাওয়া গেছে।  

উল্লেখ্য, গত ১০ আগস্ট পাথরঘাটা কলেজ প্রঙ্গনে একটি পুকুর থেকে এক তরুণীর গলিত মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ পাথরঘাটা থানায় একটি হত্যা মামলা রুজু করে। পুলিশের ধারণা তরুণীকে ১২/১৫ দিন আগে ধর্ষণ ও হত্যা করে পুকুরে একটি খুটির সাথে বেধেঁ পানির নিচে রেখে দেয়। এর পর কলেজ নৈশ প্রহরীকে গ্রেপ্তার করে তার স্বীকারোক্তিমতে ছাত্রলীগের চার নেতাকে প্রেপ্তার করে।  

 

 


মন্তব্য