kalerkantho


কেরানীগঞ্জের ধলেশ্বরী নদীতে ভেসে উঠল অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি   

১৭ নভেম্বর, ২০১৭ ২২:০০



কেরানীগঞ্জের ধলেশ্বরী নদীতে ভেসে উঠল অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ

প্রতীকী ছবি

কেরানীগঞ্জের ধলেশ্বরী নদী থেকে অজ্ঞাতপরিচয় (৪৫) এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে ইট বাধা ও কম্বল পেঁচানো অবস্থায় অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ।

পরে লাশের ময়না তদন্তের জন্য পুলিশ স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ মিটফোর্ড হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার এসআই সাক্রাতুল ইসলাম জানান, দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের চর কুন্ডলিয়া এলাকার স্থানীয় বাসিন্দারা বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে ধলেশ্বরী নদীতে একটি চটের বস্তা ভাসতে দেখে। বস্তাটি দেখে তাদের সন্দেহ হলে তারা বিষয়টি প্রথমে ইউপি চেয়ারম্যান মো. আশকর আলীকে জানান। চেয়ারম্যান থানা পুলিশকে খবর দেন। খবর পেয়ে আমি সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে বস্তাটি নদী থেকে টানে তুলে নিয়ে আসি। এরপর উপস্থিত লোকজনের সামনে বস্তার মুখ খুলতেই বস্তার ভেতর থেকে কম্বল দিয়ে পেঁচানো এক ব্যক্তির লাশ বের হয়ে আসে। লাশটি কয়েক দিন পানিতে ডুবে ছিল। ফলে শরীরের বিভিন্ন অংশ পঁচন ধরেছে।

তিনি আরো জানান, নিহতের বয়স আনুমানিক ৪৫ বছর হবে।

লাশের মুখ গামছা দিয়ে বেঁধে পরে স্কচটেপ দিয়ে পেঁচানো ছিল। পরনে একটি চেক লুঙ্গি রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে হত্যার পর লাশ গুম করার উদ্দেশ্যে তিনটি কম্বল দিয়ে পেঁচিয়ে ইট বেঁধে পাট সুতার চটের বস্তায় ভরে পানিতে ফেলে দেয়া হয়েছিল। দুর্বৃত্তরা হয়তো ভেবেছিল ইট বেধে পানিতে ফেললে লাশ আর ভেসে উঠবে না, পানির নিচে পঁচে গলে যাবে। কিন্তু ইট-পাথর নিয়েই দু'তিন দিন পর লাশটি পানিতে ভেসে উঠে। এলাকাবাসী দেখে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে।

এ ব্যাপারে শুক্রবার সকালে পুলিশ বাদী হয়ে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত অজ্ঞাত ব্যক্তির পরিচয় পাওয়া যায়নি।


মন্তব্য