kalerkantho


১৫ দিনেও সন্ধান মেলেনি নিখোঁজ মাদরাসা ছাত্রের

জামালপুর প্রতিনিধি   

২৪ অক্টোবর, ২০১৭ ১৭:০৯



১৫ দিনেও সন্ধান মেলেনি নিখোঁজ মাদরাসা ছাত্রের

ছবি: কালের কণ্ঠ

মেলান্দহ পৌরসভার মলিকাডাঙ্গা এলাকার আল-জামিয়াতুল আহালিয়া মহিউসুন্নাহ মাদরাসায় অধ্যয়নরত হেফজ বিভাগের ছাত্র মো. মেরাজুর রহমান রিপন (১৪) গত ৯ আগস্ট রাতে নিখোঁজ হলেও গত ১৫ দিনেও তার সন্ধান পাওয়া যায়নি।

মাদরাসার শিক্ষক হাছানুজ্জামান জানান, শেরপুর জেলার নকলা থানার বাছুর আলগা উত্তরপাড়া গ্রামের এনামুল হকের পুত্র মো. মেরাজুর রহমান রিপন।

সে মেলান্দহ পৌরসভার মলিকাডাঙ্গা এলাকার আল-জামিয়াতুল আহালিয়া মহিউসুন্নাহ মাদরাসায় হেফজ বিভাগে অধ্যনরত ছিল।

সেখানে অধ্যয়নকালে মেরাজুর রহমান রিপন মেলান্দহ পৌরসভার মলিকাডাঙ্গা গ্রামের আরিফুল ইসলামের বাড়িতে লজিং থাকতো। সেই সুবাদে মেরাজুর রহমান গত ৯ অক্টোবর রাত ৮টায় মাদরাসা থেকে বের হয়ে আরিফুল ইসলামের বাড়িতে যায়। সেখানে সে রাতের খাবার শেষে মাদরাসায় ফেরার উদ্দেশে ওই বাড়ি থেকে রওনা হলেও আজও সে আর মাদরাসায় ফেরেনি। তবে নিখোঁজ মেরাজুর রহমান রিপন গত ১২ অক্টোবর রাত ১.৩০ মিনিটে তার মাদরাসার শিক্ষক হাফেজ আবুল কালামের মোবাইল ০১৯৩১৩০৪৪৭৮ নম্বরে অজ্ঞাত ব্যক্তির মোবাইল ০১৮১৫৩৭৯৩২৩ নম্বর দিয়ে ফোনে সে খুব বিপদে রয়েছে বলে জানিয়েছে। এরপর অনেক খোঁজাখুঁজি করলেও গত ১৫ দিনেও নিখোঁজ মাদরাসা ছাত্রের সন্ধান পাওয়া যায়নি। এ ব্যাপারে মাদরাসার সহকারী শিক্ষক মাওলানা শহিদুল্লাহ মেলান্দহ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন।

নিখোঁজের পিতা এনামুল হক জানান, তার ছেলে মেরাজুর রহমান রিপনকে ১৫ দিনেও খোঁজে পাওয়া যায়নি। মেরাজুর লেখাপড়ায় খুবই অমনোযোগী ছিল।

সে মাঝে মধ্যেই মাদরাসা থেকে পালিয়ে থেকে আবার ফিরে এসেছে। তবুও ছেলের সন্ধানে সোমবার সকালে মাদরাসায় গেলে ওই মাদরাসার কয়েকজন শিক্ষকের সামনে একই মাদরাসার সাবেক ছাত্র মেলান্দহের মলিকাডাঙ্গা এলাকার আব্দুর রহমান জানিয়েছে মেরাজুর রহমান রিপনকে সে কয়েকদিন আগে ঢাকায় দেখে এসেছে। বর্তমানে আব্দুর রহমানের তথ্য সূত্রে মেরাজুরকে খোঁজা হচ্ছে।

মেলান্দহ থানার ওসি (তদন্ত) টিপু সুলতান জানান, এ ব্যাপারে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি হয়েছে। নিখোঁজ মাদরাসা ছাত্রটির পিতা-মাতা ও শিক্ষকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে সে ইতিপূর্বেও কয়েকবার মাদরাসা থেকে পালিয়ে থেকেছে। এবারও সে স্বেচ্ছায় মাদরাসা ছেড়ে অন্যত্র পালিয়ে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবুও তাকে সন্ধানের চেষ্টা চলছে।


মন্তব্য