kalerkantho


ফেসবুকে ইসলাম ধর্মকে নিয়ে কটুক্তি করায় এক ব্যক্তি আটক

ঝালকাঠি প্রতিনিধি   

২০ অক্টোবর, ২০১৭ ১৪:৪৮



ফেসবুকে ইসলাম ধর্মকে নিয়ে কটুক্তি করায় এক ব্যক্তি আটক

ফেসবুকে ইসলাম ধর্ম ও আল্লাহকে নিয়ে কটুক্তি করার অভিযোগে রাসেল হাসান লিয়া (৪২) নামে এক ব্যক্তিকে  আটক করে পুলিশে দিয়েছে জনতা। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে নলছিটি হাসপাতাল সড়কের তাঁরাবাড়ি মন্দির এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।

 

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে রাসেল হাসান লিয়া নামের এক ব্যক্তি তাঁর ফেসবুক আইডিতে ইসলাম ধর্ম ও আল্লাহকে নিয়ে বাজে মন্তব্য করে একটি স্ট্যাটাস দেয়। স্ট্যাটাসটি দেখে নলছিটি শহরের ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। তারা লিয়াকে খুঁজতে থাকে। রাতে লিয়া নলছিটি তাঁরাবাড়ি মন্দিরে কালিপূজা মণ্ডপের সামনে অবস্থানকালে তাকে আটক করে। পরে পুলিশ এসে তাকে জনতার হাত থেকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। বর্তমানে তাকে থানার হেফাজতখানায় রাখা হয়েছে।    

লিয়ার ফেসবুক অনুসন্ধান করে জানা যায়, পোস্টটিতে তিনি লিখেছেন ‘যার কোন জন্ম নাই-অর্থাৎ এখনও জন্ম হয় নাই, যার কোনো শুরু নাই, কোনো উৎপত্তি নাই তার কোনো অস্তিত্ব না থাকাই যুক্তিযুক্ত। কাজেই মুসলমানদের আল্লাহ তত্বটা একটা ধোঁকাবাজি। যা এখনও জন্ম হয় নাই, যা এখনও শুরু হয় নাই, তাকে আল্লাহ বলে যারা পরিচয় দিয়েছে তারা মূলত; মানুষকে ধোকা দিয়েছে।

তারা এবং তাদের অনুসারীরা বা মুসলমানরা মিথ্যাবাদী ধোঁকাবাজ অথবা একেবারে বোকা বা...’ ।  

এর আগেও লিয়া ২০১২ সালের ১৩ মে, ১৫ সেপ্টেম্বর পবিত্র কোরআন শরীফ পোড়ানোর ভিডিও চিত্র পোস্ট করেন। একই আইডি থেকে ২০১৩ সালের ২৮ জানুয়ারি এবং ২০১৫ সালের ১১ জুলাই অনুরুপ একটি ভিডিও পোস্ট করেন।

স্থানীয়রা জানায়, পিরোজপুরের কাউখালী উপজেলার গুরুনাথপুর গ্রামের মৃত আবদুল লতিফ সিকদারের ছেলে রাসেল হাসান লিয়া এক সময় পরিবারের সঙ্গে নলছিটিতে বসবাস করতেন। তাঁর বাবা ও মা নলছিটি পরিবার পরিকল্পনা বিভাগে চাকরি করতেন। লিয়া নলছিটি মাচেন্টস মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ১৯৯২ সালে এসএসসি পাস করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনার্স মাস্টার্স করার পর পারিবারিক কলহের কারণে রাসেল হাসান লিয়া নেশায় আসক্ত হয়ে পড়েন। পরে তাদের পরিবার বরিশালে বসবাস শুরু করে। লিয়াও সরকারি চাকরি করতেন। চাকরি ছেড়ে দুই বছর আগে পুনরায় নলছিটিতে চলে আসেন। খাসমহল এলাকায় একটি বাসা ভাড়া করে থাকতো সে। তাঁর চলাফেরা ছিল মানসিকভারসম্যহীন ব্যক্তিদের মতো। মুসলিম পরিবারের সন্তান হলেও নলছিটিতে আসার পর থেকে লিয়াকে তাঁরাবাড়ি মন্দির এলাকায় দেখা যেত। অনেকেই ধারণা করেছিলেন তিনি ধর্মান্তরিত হয়ে হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করতে পারে। এরপরই গতকাল বৃহস্পতিবার সাড়ে পাঁচটার দিকে ফেসবুকে তাঁর দেওয়া স্ট্যাটাস দেখে লিয়ার পরিচিত সবাই ক্ষোভে ফুঁসে ওঠে। স্থানীয় জনতা তাকে খুঁজতে থাকেন। এক পর্যায়ে তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।  

এ ব্যাপারে নলছিটি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবদুল হালিম তালুকদার বলেন, লিয়ার কিছুটা মানসিক সমস্যা রয়েছে। আটক করার খবর পেয়ে তার পরিবার আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন, তারা আসলে সিদ্ধান্ত হবে। বর্তমানে লিয়াকে থানার হেফাজতখানায় রাখা হয়েছে।  

এদিকে থানা হেফাজতে রাসেল হাসান লিয়া জানান, সে সুস্থ্য, স্বাভাবিক রয়েছে। ফেসবুক পোস্ট এবং তার মৌখিক বক্তব্যের প্রেক্ষিতেই তাকে আটক করা হয়। তিনি বাবা, মা ও ভাই বোনের সঙ্গে যাবেন না বলেও জানান।

 


মন্তব্য