kalerkantho


মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

কেরানীগঞ্জে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি    

২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ১৮:৩৪



কেরানীগঞ্জে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ

ঢাকার কেরানীগঞ্জের বাস্তা ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ও ৪ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার নুরুজ্জামান দেওয়ানের বিরুদ্ধে প্রতিবেশী এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ঢাকার আদালতে একটি মামলা করেছেন।

আজ শুক্রবার সকালে বাস্তা ইউনিয়নের রাজাবাড়ি এলাকায় অভিযুক্ত মেম্বারের বিচার দাবিতে মানববন্ধন করেছে স্থানীয়রা। মানববন্ধনে অংশ নেন ভুক্তভোগীর পরিববার, ৫ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার জহির উদ্দিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য জাকির আহমেদ, বাস্তা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সাহেদ আলীসহ শতাধিক মানুষ।

ধর্ষণের শিকার ওই তরুণী মানববন্ধনে অংশ নিয়ে জানান, কয়েক মাস পূর্বে প্রথম স্বামীর সঙ্গে তার ডিভোর্স হয়। এরপর তিনি বাবা-মায়ের  সংসারে আশ্রয় নেন। এ সময় স্থানীয় মেম্বার নুরুজ্জামান দেওয়ান তাকে মাদার হোসেন নামের প্রতিবেশী এক ছেলের সঙ্গে বিয়ের প্রস্তাব দেন। অভিযুক্ত নুরুজ্জামান সম্পর্কে তার মামা হন। পাত্র কক্সবাজারে অবস্থান করছে এবং সেখানে গিয়ে বিয়ে হবে জানিয়ে গত ৭ সেপ্টেম্বর নুরুজ্জামান তাকে নিয়ে কক্সবাজার হোটেল গ্রিন প্যালেসের ৩০৬ নম্বর কক্ষে ওঠেন।

ওই তরুণী আরও জানান, হোটেল কক্ষে নুরুজ্জামান তাকে একধিকবার ধর্ষণ করে এবং কাউকে ঘটনা জানালে বা থানায় মামলা করলে তাকে ও তার পরিবারকে হত্যার হুমকি দেন। এরপর ৯ সেপ্টেম্বর তাকে ঢাকায় নিয়ে আসেন।

পরে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় গিয়ে অভিযোগ করলেও তারা মামলা নেয়নি। এরপর ওই তরুণী অসুস্থ হয়ে পড়লে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ধর্ষণজনিত পরীক্ষা করেন এবং প্রতিবেদন নিয়ে আদালতে মামলা করেন।

বাস্তা ইউনিয়ন ৫ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার জহির উদ্দিন বলেন, "এ ঘটনায় আমরা লজ্জিত। আমাদেরই এক সহকর্মীর হাতে মেয়েটি ধর্ষিত হয়েছে। প্রতারণার মাধ্যমে মেয়েটিকে কক্সবাজার নিয়ে এ অপকর্ম করেছে নুরুজ্জামান। আমরা তার উপযুক্ত শাস্তি দাবি করছি। "

এ ঘটনায় অভিযুক্ত নুরুজ্জামান মেম্বারের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তার সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি। এ ব্যাপারে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ  থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, "ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটেছে কক্সবাজার এলাকায় তাই সেখানে মামলা করার কথা বলেছি। " 


মন্তব্য