kalerkantho


লালমোহনে পরিবারের সদস্যদের অচেতন করে মালামাল লুট

ভোলা প্রতিনিধি    

২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ১৬:৪৭



লালমোহনে পরিবারের সদস্যদের অচেতন করে মালামাল লুট

ভোলার লালমোহনে ফের পরিবারের সদস্যদের অচেতন করে প্রায় পাঁচ  লাখ টাকা মূল্যের স্বর্ণালংকার ও মূল্যবান মালামাল লুট করেছে অজ্ঞান পার্টির সদস্যরা। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার দেবিরচর এলাকার মুনসুর হাওলাদার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

আজ শুক্রবার সকালে অসুস্থদের মধ্যে গৃহকর্তা ছিদ্দিক হাওলাদার (৭৫), তার ছেলে নকীব হাওলাদার (৪০), তার স্ত্রী লাকী বেগম (২৩) ও শাশুড়ি নুর নাহারকে (৫৫) স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ভুক্তভোগী পরিবারের স্বজন ফরিদ হাজী জানান, বৃহস্পতিবার রাতে পরিবারের সদস্যরা রাতের খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়লে পরদিন শুক্রবার সকালে তারা প্রায় অচেতন অবস্থায় বিছানায় পড়ে থাকেন। সকালে প্রতিবেশীদের মাধ্যমে খবর পেয়ে তাদেরকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। তিনি জানান, রাতের কোনও এক সময় সংঘবদ্ধ অজ্ঞান পার্টির সদস্যরা  ঘরে প্রবেশ করে স্টিলের আলমারি, শোকেজ ও ওয়ারড্রোব ভেঙে প্রায় পাঁচ লাখ টাকার স্বর্ণালংকার ও অন্যান্য মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।

পরিবারের ধারনা, রাতের খাবারের সঙ্গে চেতনানাশক ওষুধ দেওয়া হয়েছিল। সবাই সুস্থ হলে মামলা করা হবে বলেও জানান তিনি। লালমোহন থানার ডিউটি অফিসার এএসআই শওকত জামিল বলেন, "এ ব্যাপারে কেউ কোনও লিখিত অভিযোগ দেয়নি। "

উল্লেখ্য, লালমোহনে গত এক মাসে অন্তত তিন বাড়িতে এ ধরনের ঘটনা ঘটেছে। এতে ওই উপজেলাবাসীর মধ্যে রীতিমত আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

 


মন্তব্য