kalerkantho


প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্য বিবাহ থেকে রক্ষা পেল অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফরিদপুর   

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ১৮:২৮



প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্য বিবাহ থেকে রক্ষা পেল অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী

ছবি: কালের কণ্ঠ

ফরিদপুরে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্য বিবাহ থেকে রক্ষা পেল অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রী। এ ঘটনাটি ঘটেছে আজ বৃস্পতিবার দুপুরে সদর উপজেলার ডিক্রিরচর ইউনিয়নের বাছের মোল্লারডাঙ্গি গ্রামে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, ওই গ্রামের চা বিক্রেতা মো. কালামের মেয়ে (১৪) স্থানীয় নূরুল ইসলাম উচ্চ বিদ্যালয়ে অষ্টম শ্রেণিতে পড়ে। মেয়ের অমতে  সদরের আলিয়াবাদ ইউনিয়নের বায়তুল আমান গ্রামের এক ভ্যানচালকের সঙ্গে বিয়ে ঠিক করা হয়। আজ বিকেলে বিয়ে অনুষ্ঠানের কথা ছিল। দুপুরের মধ্যে রান্নাসহ বিয়ের সমস্ত আয়োজন শেষ করা হয়। অপেক্ষা শুধু বর আসার। এমন সময় সেখানে পুলিশসহ উপস্থিত হন সদরের সিনিয়র সহকারি কমিশনার (ভূমি) পূরবী গোলদার। আগে থেকেই সেখানে ছিলেন বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড অ্যান্ড সার্ভিসেস ট্রাস্ট (ব্লাস্ট), ফরিদপুরের কর্মীরা।

এরপর পরিবারের সদস্যদের বাল্য বিবাহের কুফল সম্পর্কে বুঝিয়ে বলে জানানো হয় এটি একটি দণ্ডযোগ্য অপরাধ।

ব্লাস্ট, ফরিদপুরের অ্যাডভোকেসি অফিসার হাসিনা মমতাজ লাভলী জানান, সকাল থেকেই অপ্রাপ্ত মেয়েকে বাল্য বিবাহ না দিতে বুঝানো হলেও কালাম বিরত থাকেনি।

বিয়ের সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়। আমরা বিষয়টি জেলা প্রশাসনসহ সংশিষ্টদের জানাই। অবশেষে সহকারি কমিশনারের উপস্থিতিতে কালাম পড়ালেখা শেষ করে প্রাপ্ত বয়স্ক হলে তখন মেয়েকে বিয়ে দেওয়া হবে মর্মে মুচলেকা দেয়।


মন্তব্য